দেবীগঞ্জে কবিতা হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

ঢাকা, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫

দেবীগঞ্জে কবিতা হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

পঞ্চগড় প্রতিনিধি ৬:৩৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৮

দেবীগঞ্জে কবিতা হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার পামুলী দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ও ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের রাজেন্দ্র নাথের মেয়ে কবিতা রানীকে (১৫) হত্যার অভিযোগে স্থানীয় আনিসসহ তার সহযোগীদের দ্রুত গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

 

শুক্রবার সকাল ১১টায় দেবীগঞ্জের চৌরাস্তায় দেবীগঞ্জ উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও দেবীগঞ্জ উপজেলাবাসী এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে দেবীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেয়।

এসময় দেবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাত জামান চৌধুরী জর্জ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পরিমল দে সরকার, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি বাবু কল্যাণ কুমার ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক বিপেন চন্দ্র, সাংগঠনিক সম্পাদক জতীশ চন্দ্র, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জীবর্ধন বর্মণ, দেবীগঞ্জ উপজেলা সাধারণ সম্পাদক হরিশ চন্দ্র রায়, কবিতার বাবা-মা, কাকা ও পামুলি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজাহার হোসেন বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মূল আসামি আনিসসহ তার সহযোগীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আসামিদের গ্রেফতার করা না হলে পুলিশের বিরুদ্ধে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলার হুঁশিয়ারি দেন তারা।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুলাই বৃহস্পতিবার দুপুরে দেবীগঞ্জ উপজেলার পামুলি ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া এলাকার পুকুর থেকে কবিতা রানী (১৫) নামে এক শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

পরিবারের সদস্যরা জানান, ওই এলাকার সুরুজ আলীর ছেলে আনিসসহ তার সহযোগীরা কবিতা রানীকে বিভিন্ন সময় উত্ত্যক্ত করতো। বুধবার গভীর রাতে তার বড় বোন ছোট বোন কবিতাকে ঘরে দেখতে না পেয়ে বাবা-মাকে জানায়। তারা খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে গত ২৬ জুলাই বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির পাশে পুকুরে কবিতা রানীর লাশ দেখতে পায়। তাৎক্ষণিক পরিবারের সদস্যরা পুকুর থেকে লাশ তুলে বাড়িতে নিয়ে এসে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ কবিতা রানীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

পরিবারের অভিযোগ- আনিসসহ তার সহযোগীরা কবিতা রানীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে পুকুরে ফেলে দেয়। ওই রাতে কবিতা রানীর বাবা রাজেন্দ্র নাথ দেবীগঞ্জ থানায় মেয়ের হত্যাকারী আনিসসহ ৩ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করে। পুলিশ ১ জনকে গ্রেফতার করে। তবে পুলিশ মূল আসামি আনিসকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি। 

কেএ/এএল/