বাবা-মায়ের পাশে শায়িত হলেন তাজুল ইসলাম চৌধুরী

ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

বাবা-মায়ের পাশে শায়িত হলেন তাজুল ইসলাম চৌধুরী

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ৮:৪০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৫, ২০১৮

বাবা-মায়ের পাশে শায়িত হলেন তাজুল ইসলাম চৌধুরী

সোমবার রাতে ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়া জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ কুড়িগ্রাম-২ আসনের জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য আলহাজ তাজুল ইসলাম চৌধুরীকে কুড়িগ্রামে তার বাবা-মায়ের পাশে শায়িত করা হয়েছে।

মরহুম তাজুল ইসলাম চৌধুরীর মরদেহ বুধবার দুপুর ১২টায় হেলিকপ্টার যোগে ঢাকা থেকে কুড়িগ্রাম স্টেডিয়াম মাঠে আনা হয়। সেখান থেকে তার মরদেহ কুড়িগ্রাম পুরাতন শহরের নিজ বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়।

এখানে শেষবারের মতো কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন দলের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ তার কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। তারা তাজুল ইসলাম চৌধুরীর পরিবারের সদস্যদের কাছে সমবেদনা জানান।

পরে দুপুর ২টায় কুড়িগ্রাম কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে নামাজে জানাজা শেষ করে কুড়িগ্রাম কেন্দ্রীয় কবরস্থানে তার বাবা-মায়ের কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়।

জানাজা নামাজে উপস্থিত স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা, কুড়িগ্রাম-১ আসনের সংসদ সদস্য মোস্তাফিজার রহমান, কুড়িগ্রাম-৩ আসনের সংসদ সদস্য ডা. আক্কাছ আলী সরকারসহ জাতীয় পার্টির নেতাকর্মী ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন।

এর আগে তাজুল ইসলাম চৌধুরীর মৃত্যুর সংবাদ শুনে তার হাত দিয়ে প্রতিষ্ঠিত বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শোক কর্মসূচি ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফুলবাড়ী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় (পাইলট) কর্তৃপক্ষ তার রুহের মাগফেরাতে দোয়া মাহফিলের কর্মসূচি পালন করে।

উল্লেখ্য, আলহাজ তাজুল ইসলাম চৌধুরী কুড়িগ্রাম-২ আসন থেকে ৭ বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি জাতীয় পার্টির সরকারের সময় ভূমি প্রতিমন্ত্রী ও যুব-ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এছাড়াও তিনি ১০ম জাতীয় সংসদে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ ছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কিডনি সমস্যা ও ডায়াবেডিস রোগে ভুগছিলেন। স্ত্রী, ২ ছেলে, ১ মেয়েসহ রাজনৈতিক জীবনের তিনি অসংখ্য গুণগ্রাহী ভক্ত রেখে যান।

ইউএএ/এএল/