নীলফামারীতে মাদক ‘সম্রাজ্ঞী’র বাড়িতে জনতার আগুন

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট ২০১৮ | ১ ভাদ্র ১৪২৫

নীলফামারীতে মাদক ‘সম্রাজ্ঞী’র বাড়িতে জনতার আগুন

নীলফামারী প্রতিনিধি ১:৪৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৪, ২০১৮

print
নীলফামারীতে মাদক ‘সম্রাজ্ঞী’র বাড়িতে জনতার আগুন

নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় মাদক ‘সম্রাজ্ঞী’ সাহিদা বেগম ওরফে রুপার (৩৭) বাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও আগুন দিয়েছে বিক্ষুদ্ধ জনতা। এতে আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায় বাড়িটি।

বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নীলফামারীর ডোমার উপজেলা শহরের ৪নং ওয়ার্ডের ছোট রাউতা কাজীপাড়া এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে। গ্রেফতার এড়াতে রুপা পলাতক থাকলেও স্বামী মিজানুর রহমান মাদক মামলায় গ্রেফতার হয়ে প্রায় একমাস থেকে জেল হাজতে রয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, কাজীপাড়া এলাকায় এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে বসবাস করেন মাদক সম্রাজ্ঞী রুপা। একই উপজেলার পাঙ্গা মটকপুর ইউনিয়নের মটকপুর গ্রামের আব্দুল জব্বারের মেয়ে সে। বিয়ে করার পর মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েন রুপা। স্থানীয়রা জানান, আগে থেকে মাদক ব্যবসায় জড়িত ছিলেন রুপার স্বামী মিজানুর। বিয়ের পর সেও একই ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে।

পুলিশ জানায়, রুপার বিরুদ্ধে ১৫টি এবং স্বামীর বিরুদ্ধে ১৩টি মামলা রয়েছে থানায়। দুই জনেই মাসের পর মাস জেল খেটেছেন। সম্প্রতিক সারাদেশে মাদকবিরোধী অভিযান শুরু হলে আত্মগোপনে চলে যায় রুপা।

স্থানীয় পশু চিকিৎসক আসাদুজ্জামান হিল্লোল আক্ষেপ করে বলেন, রুপা ও তার স্বামী সমাজকে কলুষিত করে ফেলেছে। মাসের পর মাস জেল খেটে অনেকবার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো আর ওই পথে জড়াবে না কিন্তু প্রতিশ্রুতি রাখতে পারেনি। বাধ্য হয়ে বিক্ষুদ্ধ লোকজন মাদক ব্যবসায়ীর বাড়ি গুড়িয়ে দিয়েছে। এটা ভালো কাজ হয়েছে। এরফলে অন্য যারা এই ব্যবসার সাথে জড়িত তাদের জন্যে এটা অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হতে পারে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ডোমার থানার ওসি মোকছেদ আলী জানান, মাদকবিরোধী অভিযান শুরু হওয়ার পর থেকে আত্মগোপনে যায় রুপা। তাকে ধরতে এখনো চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। আজকে যে ঘটনা ঘটেছে সেটা মানুষের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ।

এব্যাপারে পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন মানুষ। সমাজ থেকে মাদক ব্যবসায়ীদের প্রত্যাখ্যান করে তাদের বিরুদ্ধে নেমেছেন তারা। এরআগেও সৈয়দপুর উপজেলায় দুই মাদক ব্যবসায়ীর বাড়ি ভাংচুর চালান স্থানীয়রা।

এনএ/এএস

 
.


আলোচিত সংবাদ