শেখ হাসিনা সেতুর পাশে হচ্ছে পর্যটন কেন্দ্র

ঢাকা, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

শেখ হাসিনা সেতুর পাশে হচ্ছে পর্যটন কেন্দ্র

আব্দুর রব নাহিদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৮:০৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯

শেখ হাসিনা সেতুর পাশে হচ্ছে পর্যটন কেন্দ্র

ছকে বাঁধা জীবনের বাইরে একটু ছুটি মিলছে, ভাবছেন কোথায় যাবেন। তাহলে আপনাকে আমন্ত্রণ আমের রাজধানীর সবুজে ঘেরা প্রকৃতিতে। আপনাকে স্বাগত জানাতেই একটু একটু করে তৈরি হচ্ছে উত্তরের জেলা চাঁপাইনবাবগঞ্জ।

সুবজে ঘেরা প্রকৃতির মাঝেই আপনার কেটে যাবে সারাটা দিন, সকালের আড়মোড়া ভেঙ্গে গ্রামীন মানুষ গুলোর কর্মব্যস্ততা চোখে পড়বে, সারাদিন ঐতিহাসিক স্থানে ঘুরোঘুরি আর বিকালে সবুজ ঘাসে চায়ের আড্ডা, রাতে জেলার ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক পরিবেশনা মুগ্ধ করবে আপনাকে।

ভাবছেন এতোসব আয়োজন, হ্যা আপনাকে স্বাগত জানতেই চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার অদূরে শেখ হাসিনা সেতুর পাশে প্রায় ৪৪ একক জায়গা নিয়ে গড়ে উঠছে পর্যটন কেন্দ্র।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পর্যটন কেন্দ্রের প্রকল্পটি অনুমোদন করে দিয়েছেন। গত সোমবার ৫ লাখ টাকা প্রতীকী মূল্যে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়কে জমি বরাদ্দ দিতে ভূমি মন্ত্রনালয়কে নির্দেশনা দিয়েছেন। এ প্রকল্পটি বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয় বাস্তবায়ন করবে। তারা আমাকে জানিয়েছে দ্রুতই অবকাঠানো নির্মাণ কাজ শুরু হবে, সেটা আগামী মাসেই হতে পারে।

তিনি আরও বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের আমের সুনাম সবখানেই আছে, অনেকেই এখানে ঘুরতে আসতে চান, কিন্তু তাদের থাকা ও খাওয়ার জন্য ভাল মানের সুযোগ খুবই সীমিত ছিলো। এ পর্যটন কেন্দ্রটি গড়ে উঠলে, এখানে পাঁচ তারকা মানের হোটেলসহ পর্যটকদের জন্য আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা থাকবে। অবকাঠামোগত উন্নয়নের ফলে শুধু আমের মৌসুম নয়, সারাবছরই পর্যটক আসবে। এতে করে বিকশিত হবে এ জেলার পর্যটন শিল্প, বাড়বে অর্থনীতিও, সৃষ্টি হবে কর্মসংস্থানের সুযোগ। সেই সাথে পর্যটন কেন্দ্রের পাশাপাশি শেখ হাসিনা সেতু এলাকার পাশে বিশাল এলাকা জুড়ে অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার প্রস্তাবনাও আমরা পাঠিয়েছি, সেটিও দ্রুতই আলোর মুখ দেখবে।

এআরএন/এসইউজে

 

রাজশাহী: আরও পড়ুন

আরও