পা দিয়ে লিখেই আলিম পাস নিলার

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

পা দিয়ে লিখেই আলিম পাস নিলার

এইচএম আলমগীর কবির, সিরাজগঞ্জ ৭:৫৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০১৯

পা দিয়ে লিখেই আলিম পাস নিলার

জন্মের পর থেকেই একটি হাত নেই, অন্য হাতটি থেকেও অকেজো। কিন্তু বড় হওয়ার স্বপ্ন এই প্রতিবন্ধকতা বাধা হতে পরেনি নিলার। পা দিয়ে লিখেই দাখিল ও আলিম পাস করেছে সে।

নিলা বরধুল মাদ্রাসা থেকে ২০১৭ সালে দাখিল এবং এ বছর কামারখন্দ ফাজিল মাদ্রাসা থেকে আলিম পাস করেছে।  

নিলা খাতুন সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার বরধুল গ্রামের ওসমান গণীর মেয়ে।

নীলার সহপাঠীরা জানায়, হাত না থাকায় পা দিয়ে পরীক্ষা দেয়া দেখে আমরা অবাক হয়েছি। আমরা সুস্থ শরীরে পরীক্ষা দিতে গিয়ে একটু ভয় ভয় লাগছিলো। কিন্তু নিলাকে দেখে মনে হয়েছিলো স্বাভাবিকভাবে পরীক্ষা দিয়ে চলেছে। তার এ অদম্য ইচ্ছা দেখে মনে হয়েছে আমাদের চেয়ে সে অনেক ভালো পরীক্ষা দিয়েছে।

তারা জানায়, তার ভালো ফলাফল দেখে আমরা সবাই খুশি। তার হাত না থাকলেও মনোবল তাকে আজ এখানে নিয়ে এসেছে। তার সাথে পরীক্ষা দিয়ে আমরা গর্ববোধ করছি। দোয়া করি ওর স্বপ্ন যেন পূরণ হয়।

নিলার বাবা ওসমান গণী বলেন, ফলাফল দেখে অনেক আনন্দিত, তবে রয়েছে নানা দুশ্চিন্তাও। আমি কৃষিকাজ করে দুইটা ছেলেকে মাস্টার্স পাস করিয়েছি, এখন তারা বেকার। আর একটা ছোট ছেলে ৮ম শ্রেণিতে পড়ালেখা করাছি। কৃষিকাজ করে সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছি। এর মধ্যে নিলার লেখাপড়া কত দূর চালিয়ে নিতে পারব, আল্লাহই জানেন।

প্রতিবন্ধী নিলা বলে, ‘পরিবার ও দেশের বোঝা না হয়ে বরং মানুষের সেবা করতে পারি। পাশাপাশি এ পর্যন্ত পৌঁছাতে পেরে শিক্ষক, বাবা-মা, সহপাঠী, সহযোগী সবার কাছে কৃতজ্ঞ আমি। এখন উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করে যেন সরকারি চাকরি করে দেশের সেবা করতে পারি এজন্য সরকারের কাছে আমার পড়াশোনা ও সব ধরনের সাহায্য-সহযোগিতা কামনা করছি।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, ‘নিলার পরিবারকে একটা আবেদন দিতে বলা হয়েছে, নিলাকে সরকারি সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দেয়া হবে।’

এইচআর

 

রাজশাহী: আরও পড়ুন

আরও