বিশেষজ্ঞের পরামর্শ ছাড়া আমবাগানে বালাইনাশক নয়

ঢাকা, বুধবার, ২২ মে ২০১৯ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

বিশেষজ্ঞের পরামর্শ ছাড়া আমবাগানে বালাইনাশক নয়

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ৪:২৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৪, ২০১৯

বিশেষজ্ঞের পরামর্শ ছাড়া আমবাগানে বালাইনাশক নয়

ভোক্তার কাছে নিরাপদ আম যাতে পৌঁছায়, সেই লক্ষ্যে এখন থেকে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ ছাড়া বাগানে কোনো ধরনের বালাইনাশক ব্যবহার করা যাবে না। বিশেষজ্ঞের পরামর্শের ব্যবস্থাপনাপত্রটি বাগানে থাকা নির্ধারিত রেজিস্টারে লিপিবদ্ধ করতে হবে।

জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের কৃষি কর্মকর্তা ও কিংবা উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্রের বিশেষজ্ঞের কাছ থেকে বিনামূল্যে বাগানের যত্নের জন্য প্রয়োজনীয় বালাইনাশকের বিষয়ে পরামর্শ গ্রহণ করতে পারবেন বাগান মালিক ও আম ব্যবসায়ীরা।

নিরাপদ আম ভোক্তার কাছে পৌঁছতে করণীয় নির্ধারণে সংশ্লিষ্টদের সাথে বুধবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সিদ্ধান্ত এসব সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সভায় জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক, পুলিশ সুপার টি এম মোজাহিদুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মঞ্জুরুল হুদা, আঞ্চলিক উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্রের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. জমির উদ্দীনসহ আম ব্যবসায়ী নেতা, আড়তদার, আমবাগান মালিকরা অংশ নেন।

এ ছাড়াও সভায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের সব আম বাজারে আমের ওজনের ক্ষেত্রে ৪০ কেজিতে যেন মণ ধরা হয়, এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়, এটি মেনে চলতে সব ব্যবসায়ীদের অনুরোধ জানানো হয়।

সভা শেষে জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক জানান, উচ্চ আদালত যে রায় দিয়েছেন, তার আলোকেই আমরা নিরাপদ আম যাতে ভোক্তার কাছে পৌঁছানো যায়, সেই লক্ষ্যে আমরা বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা নিয়মিত মনিটরিং করব—এই সিদ্ধান্ত অমান্য করলে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব। সেই সাথে অনলাইনে ও বিদেশি ক্রেতার কাছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম বিক্রির জন্য কিছু করা যায় কি না, সেই ভাবনাও আমাদের আছে। আমরা সবার কাছে এই বার্তায় দিচ্ছি, চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম শতভাগ নিরাপদ হয়েই ভোক্তার কাছে যাবে।

এমএ