হেলমেট না থাকায় তেল না পেয়ে পাম্প বন্ধ করলেন আ’লীগ নেতা

ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

হেলমেট না থাকায় তেল না পেয়ে পাম্প বন্ধ করলেন আ’লীগ নেতা

রাজশাহী ব্যুরো ৮:৪৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮

হেলমেট না থাকায় তেল না পেয়ে পাম্প বন্ধ করলেন আ’লীগ নেতা

মাথায় কিংবা সঙ্গে হেলমেট ছিল না। তেল নিতে পাম্পে গেলে কর্মচারী দিতে অপরাগতা প্রকাশ করেন। বিপত্তি ঘটে তখনই। ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে বন্ধ করে দিলেন তেলের পাম্পটি।

এমন ঘটনা ঘটেছে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলা সদরে পুঠিয়া ফিলিং স্টেশনে। আর এই ঘটনা ঘটিয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক।

ফলে বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার পর থেকে ওই পাম্প থেকে কোনো তেল বিক্রি হয়নি। তবে আওয়ামী লীগের ওই নেতার দাবি সরকারি জায়গা অবৈধভাবে দখল করে তেলের পাম্পটি বসানো হয়েছে। এ কারণেই পাম্প বন্ধ করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক মোটরসাইকেলে তেল নিতে পাম্পে আসেন। সে সময় তার কাছে কোনো হেলমেট ছিল না। তাই পাম্পের একজন বিক্রয়কর্মী তেল দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তিনি চলে যান। কিছুক্ষণ পর তিনি ফিরে এসে নিজে দাঁড়িয়ে থেকে কর্মচারীদের দিয়ে দড়ি বেঁধে পাম্পের প্রবেশ পথ বন্ধ করে দেন এবং বলে যান কারো কাছে যেন তেল বিক্রি করা না হয়। এরপর থেকেই পাম্পে তেল বিক্রি বন্ধ রয়েছে।

পাম্প কর্মচারীরা জানান, হেলমেটবিহীন কোনো মোটরবাইকে তেল না দেয়ার নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। পাম্পের সামনে এ সংক্রান্ত একটি ব্যানারও ঝুলিয়ে দেয়া আছে। তাই বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হেলমেটবিহীন থাকায় আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল মালেককে তেল দেয়া হয়নি। তাছাড়াও পাম্প কর্মচারী তাকে চিনতে পারেননি।

পাম্পের মালিক আবদুল মমিন বলেন, গত দেড় বছর ধরে পাম্পটি ভাড়া নিয়ে ব্যবসা করছি। তবে পাম্পটি বৈধ না অবৈধ জায়গায় আছে সে ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না। হেলমেট না থাকলে কোনো মোটরসাইকেলে তেল দেবার নিষেধাজ্ঞা থাকার কারণে কর্মচারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেকের কাছে তেল বিক্রি করেননি। সে কারণে পাম্পে তেল বিক্রি বন্ধ করে দেন ওই নেতা।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক সাংবাদিকদের বলেন, পাম্পে তেল আনতে গেলে হেলমেট না থাকায় তাকে তেল দেয়া হয়নি। অসাবধানতাবশত সামান্য অপরাধে যদি তেল না দেয়া হয়, তাহলে পাম্পটি সরকারি জায়গা দখল করে অবৈধভাবে ব্যবসা করছে। তাদেরও আইন অনুযায়ী বৈধভাবে ব্যবসা করতে হবে। সে কারণে পাম্পের তেল বিক্রি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

পুঠিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রাকিবুল হাসান বলেন, মোটরসাইকেলে তেল না দেয়ার বিষয় নিয়ে কর্মচারীর সাথে আব্দুল মালেকের কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাম্পে তেল বিক্রি বন্ধ রয়েছে। 

বিএইচএস/এএল/