শেষ সময়ের ঈদ বাজারে

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯ | ৫ আষাঢ় ১৪২৬

শেষ সময়ের ঈদ বাজারে

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:১৪ পূর্বাহ্ণ, মে ২৯, ২০১৯

শেষ সময়ের ঈদ বাজারে

ঈদের বাকি আর মাত্র কয়ে দিন। এখনো চলছে পুরোদমে বেচাকেনা। এখন যারা মার্কেটগুলোতে ভিড় করছেন তারা অতি প্রয়োজন ছাড়া যাচ্ছেন না। যেহেতু  সময় খুব কম তাই দোকানগুলোতে প্রয়োজনীয় জিনিসের জন্য বেড়েই চলছে কেনাকাটার ধুম।  আসুন দেখে নেই এক ঝলক।  

রমজানের শেষ সপ্তাহে ঈদের বিপণি বিতানগুলোর মার্কেটে ক্রেতার আনাগোনা অনেক বেড়েছে। আর তাতেই খুশি বিক্রেতারা। ঢাকার মার্কেটগুলো যমুনা ফিচার পার্ক, বসুন্ধরা সিটি, গাউছিয়া মার্কেট, চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট, ধানমন্ডি হকার্স মার্কেট, কাঁটাবন মার্কেট, চাঁদনি চক সুপার মার্কেট, ইস্টার্ন মল্লিকা ও শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেট  ঘুরে দেখা যায়, বিপণি বিতানগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় বেড়েছে। থ্রি পিস, পাঞ্জাবি দোকানে ক্রেতাদের উপস্থিতি সবচেয়ে বেশি। প্রতিটি মার্কেটে দেশি কাপড় ও ডিজাইনারদেও তৈরি পোশাকের বুটিক হাউসগুলোতে ক্রেতার সংখ্যা বেশি। এছাড়া ইন্ডিয়ান শাড়ি ও থ্রি পিসের চাহিদা রয়েছে।

প্রতিটি বিপণি বিতানে আলোকসজ্জা করা হয়েছে। এছাড়া পোশাকে আনা হয়েছে বৈচিত্র। প্রতিটি পোশাকে রয়েছে নতুনত্বের ছাপ। বিতানগুলোর সামনে নতুন পোশাকগুলো ডিসপ্লে ডল দিয়ে সাজানো হয়েছে। যেন ক্রেতারা সহজেই দেখতে পারে। ঈদের আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। কেনাকাটা তো করতেই হয়। এখন মার্কেটে ভিড় কম। চলেই চলছে।

এছাড়া ক্রেতাদের ভাষ্যমতে আজিজ মার্কেটে যে সকল পণ্য পাওয়া যায় তা অন্য কোথাও পাওয়া যায় না। এছাড়া এখানে প্রতিটি কাপড়ের রং ও ডিজাইন ভিন্ন ধরনের যা অন্য কোথাও মেলানো কঠিন। এছাড়া আমরা যেহেতু মধ্যবিত্ত পরিবার তাই দামের কথা চিন্তা করলে আজিজই ভালো। বেশির ভাগ সময় তিনি এখান থেকে কেনাকাটা করেন বলেও জানান প্রতিবেদকে।

আজিজ সুপার মার্কেট থেকে বেড়িয়ে যাওয়া হয় নিউ মার্কেট, গাউছিয়া মার্কেটে ও চাঁদনি চক সুপার মার্কেটে। সেখানেও মেলে একই চিত্র। ক্রেতা আনাগোনা বেড়েছে। ঈদে দাম একটু বেশিই তাকে। তবে যাচাই করেই কিনব।

রাজধানীর প্রতিটি মার্কেটের বিপণি বিতানগুলোতে ক্রেতা সমাগম বাড়লেও ভিড় নেই কসমেটিকস ও জুতার দোকানে। জুতা ও কসমেটিকসের দোকানে ঢিলেঢেলা ভাবে চলছে ব্যবসা। খুব একটা ভিড় নেই। যে কোনো  মার্কেটে খুব সাচ্ছন্দে কেনাকাটা করা যাবে জুতা ও কসমেটিকস।

কসমেটিকসের দোকানে তেমন ভিড় নেই। ঈদের কিছু দিন আগে বিক্রি বাড়ে। তবে এখনো বিক্রি মাত্রা কম না। আর শেষ সময় হওয়াতে সকল ধরনের দোকানে ভিড় বেড়েই চলেছে।

ইসি/