সোশ্যাল মিডিয়ার দায়িত্বজ্ঞানহীন ব্যবহারে সতর্ক করলেন ওবামা

ঢাকা, শনিবার, ২১ জুলাই ২০১৮ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৫

সোশ্যাল মিডিয়ার দায়িত্বজ্ঞানহীন ব্যবহারে সতর্ক করলেন ওবামা

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:২৯ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৭

print
সোশ্যাল মিডিয়ার দায়িত্বজ্ঞানহীন ব্যবহারে সতর্ক করলেন ওবামা

বিবিসি রেডিও ফোরের সাথে এক সাক্ষাৎকারে অতিমাত্রায় ও দায়িত্বজ্ঞানহীনভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারে সতর্ক করে দিয়েছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। মানুষকে বোঝাপড়ার জটিল ইস্যুতে বিকৃত ভূমিকা রাখা এবং অসত্য প্রচারেও সতর্ক করে দেন তিনি।

গত জানুয়ারিতে ক্ষমতা ছাড়ার পর তিনি এ প্রথম বিশদ কোন সাক্ষাৎকার দিলেন গণমাধ্যমকে। তার সাক্ষাৎকার নেন ব্রিটিশ রাজপরিবারের সদস্য প্রিন্স হ্যারি। হ্যারি রাজপরিবারের পঞ্চম উত্তরাধিকারী।

বারাক ওবামা বলেন, ' ইন্টারনেট দুনিয়াকে নতুনভাবে সাজাতে হবে, যাতে সবার জন্য গ্রহণযোগ্যতামূলক হয় এটি। এ জন্য আমাদের নেতৃত্ববৃন্দকেই উপায় খুঁজে বের করতে হবে।'

ইন্টারনের ব্যবহার নিয়ে ভবিষ্যত বিশ্ব সম্পর্কে উদ্বেগ প্রকাশ করেন বারাক ওবামা। যে কোন ঘটনাকে প্রত্যাখ্যান এবং শুধুমাত্র পড়ে ও শুনে জোরপূর্বক নিজের মতামত প্রকাশ করা নিয়েও চিন্তিত তিনি।

তিনি বলেন, ইন্টারনেটের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর বিষয় হচ্ছে, মানুষ এখানে নানা ধরণের বাস্তবতার সাথে জড়িয়ে পড়ে। তথ্যের সমাহারে তাদেরকে পক্ষপাতিত্বের দিকে জোরপূর্বক ঠেলে দেয়া হয়।

বারাক ওবামার পরবর্তী বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্প অতিমাত্রায় টুইটার ব্যবহারে অভ্যস্ত। সেদিক দিয়ে ইঙ্গিত করা হয়েছে বিশ্লেষকরা মনে করলেও বারাক ওবামা তার সাক্ষাৎকারে ট্রাম্পের নাম উল্লেখ করেননি।

 তবে তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে মানুষের সম্পর্ক উন্নয়ন ও যোগাযোগের শক্তিশালী মাধ্যম হিসেবে স্বীকার করে বলেন, এরচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে এর বাইরে একে অপরের সাথে যোগাযোগ করা, পাব বা ধর্মীয় স্থানে সাক্ষাৎ করা, প্রতিবেশীদের সাথে সরাসরি দেখা করা ও একে অপরকে জানা।

কিন্তু ইন্টারনেট আমাদের প্রত্যেক কিছুকে অতিসরলীকরণ করে ফেলেছে, যখন একজনের সাথে আরেকজনের সাক্ষাৎ হয় তখন তাদের সম্পর্ককে মনে হয় জটিল কিছু।

আরজি/

 
.



আলোচিত সংবাদ