টার্মিনেটর যুগ বোধহয় আসছে! (ভিডিও)

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ | ২৯ কার্তিক ১৪২৫

টার্মিনেটর যুগ বোধহয় আসছে! (ভিডিও)

পরিবর্তন ডেস্ক ২:৩৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮

টার্মিনেটর যুগ বোধহয় আসছে! (ভিডিও)

কানাডার বিখ্যাত পরিচালক জেমস ক্যামেরন ১৯৮৪ সালে হলিউডে নির্মাণ করেন ‘দি টার্মিনেটর’ ছবিটি। দর্শক প্রিয়তা তুঙ্গে উঠে ১৯৯১ সালে যখন তিনি এর দ্বিতীয় সিক্যুয়াল মুক্তি দেন। ছবির কাহিনী গড়ে উঠেছিল উন্নত মানব সভ্যতা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার শক্তি বৃদ্ধি করায় একপর্যায়ে তারাই মানুষের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়। ফলে টিকে থাকার স্বার্থে একসময় যন্ত্রের মুখোমুখি হয় খোদ মানব সভ্যতা।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে বর্তমান বিজ্ঞান মোটামুটি তেমন পর্যায়েই নিয়ে গেছে। তবে তা অদূর ভবিষ্যতে মানব সভ্যতার জন্য যে হুমকি হয়ে দাঁড়াবে সে সম্পর্কে স্টিফেন হকিং’সহ অনেক বিজ্ঞানীই শঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

দিন দিন প্রযুক্তি যে পথে এগুচ্ছে তাতে হলিউডের এমন ছবির মতো পরিস্থিতি দিব্য দৃষ্টিতে দেখতে পাচ্ছেন অনেক বিজ্ঞানী। কেননা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে সঙ্গে রোবট নিয়েও হালে বিজ্ঞানীরা মেতে উঠেছেন।

মার্কিন সেনাবাহিনী বিপদজনক পরিস্থিতিতে রোবট ব্যবহারের জন্য গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে। রাশিয়াতেও সাইবর্গ নির্মাণ হচ্ছে বলে কারও কারও দাবি। এমনকি ইউরোপের দেশগুলোও প্রযুক্তির সঙ্গে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে এক করার চেষ্টা চালাচ্ছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর হয়েছে।

সম্প্রতি মার্কিন রোবট নির্মাণকারী সংস্থা বস্টন ডায়নামিক্স সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও শেয়ার করেছে। যা দেখে অনেকে যেমন মজা পেয়েছেন, তেমনই রোবটের ভবিষ্যত বুঝে শঙ্কাও প্রকাশ করেছেন।

ভিডিওটিতে দেখা যায়, একটি রোবট কুকুর দরজা বন্ধ দেখে থমকে যায়। কেননা সেই দরজা খোলার ক্ষমতা তার ছিল না। এমন পরিস্থিতিতে এগিয়ে আসে অপর এক রোবট কুকুর। সেটির দরজা খোলার সক্ষমতা থাকায় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। এরপর রোবট দু’টি দরজা খুলে অপরপ্রান্তে চলে যায়।

সংস্থাটি অবশ্য বলছে, তাদের রোবট কুকুরের বিজ্ঞাপন হিসেবে এটি নির্মাণ করা হয়েছে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবট কুকুর যাতে গ্রাহকদের মন জয় করে সেজন্যই এমন বিজ্ঞাপন নির্মাণ করা। আসল কুকুরের মতো না হলেও ৩০ কেজি ওজনের রোবটটি অনেক কিছুই করতে সক্ষম। ব্যাটারিতে পুরো চার্জ থাকলে তা টানা ৯০ মিনিট পর্যন্ত সেবা দেবে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দি টাইমস বুধবার এক প্রতিবেদনে জানায়, ভিডিওটি পোস্ট করার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ৫০ লাখ বার তা দেখা হয়ে যায়। সেখানেই শেষ নয়, বিশ্বের প্রায় সব সংবাদমাধ্যমেও শিরোনাম হয় ভিডিওটি।

ভিডিও...

কেবিএ