নিজের ব্যবসা নিয়েও মিথ্যা বলেছেন ট্রাম্প! (ভিডিও)

ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ | ৩ ভাদ্র ১৪২৫

নিজের ব্যবসা নিয়েও মিথ্যা বলেছেন ট্রাম্প! (ভিডিও)

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৩৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ০৫, ২০১৮

print
নিজের ব্যবসা নিয়েও মিথ্যা বলেছেন ট্রাম্প! (ভিডিও)

নির্বাচনে দাঁড়ানোর পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্রকে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ রাষ্ট্র গড়ে তোলার অঙ্গীকার করে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দেশের নাগরিকদের কর্মসংস্থান বাড়ানোর লক্ষ্যে বিদেশি নাগরিকদের বিতারিত করাসহ নানা পরিকল্পনার কথা জানিয়েছিলেন তিনি। বিদেশের পণ্য বর্জন এবং দেশে উৎপাদন বাড়ানোর ঘোষণাও দেন মার্কিন এই ধনকুবের।

ক্ষমতা গ্রহণের পর বিদেশি নাগরিকদের বের করে দিতে তার বদ্ধপরিকর মনোভাবের প্রকাশ এরই মধ্যে দেখেছে বিশ্ব। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে যারা যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির চাকাতে গতিশীল রেখেছেন তাদের বের করে দেওয়ার ট্রাম্প নীতিকে খোদ মার্কিন নাগরিকেরাই ভালো চোখে দেখছে না।

এছাড়া ক্ষমতার এক বছর পেরিয়ে গেলেও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে খুব একটা বড় পরিবর্তন দেখাতে পারেনি ট্রাম্প প্রশাসন। তাই মার্কিন গণমাধ্যম বিষয়টি খতিয়ে দেখার চেষ্টা করেছে।

কিন্তু তদন্তে যা বেড়িয়ে এসেছে তা চমকে দিয়েছে তাদের। দেখা গেছে যুক্তরাষ্ট্রকে বিশ্বের ১ নম্বর কাতারে নিয়ে যাওয়ার ঘোষণা যে ব্যক্তি দিয়ে যাচ্ছেন সেই ট্রাম্প নিজেই কিন্তু সকল ব্যবসা বিদেশে করে থাকেন।

তদন্তের পর মার্কিন সংবাদমাধ্যম এমএসএনবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ট্রাম্প গ্রুপের বিক্রিত সব পণ্যই তৈরি হয় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে। মুখে যুক্তরাষ্ট্র প্রীতির কথা বললেও দেশের অর্থনীতিতে মূলত তেমন কোনো ভূমিকাই রাখেননি ডোনাল্ড ট্রাম্প।

প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে তার প্রতিষ্ঠান থেকে উৎপাদিত যেসব শার্ট বিক্রি হয় তার সবগুলোই আসে চীন, বাংলাদেশ, হন্ডুরাস এবং ভিয়েতনাম থেকে। ট্রাম্প গ্রুপের বিক্রিত স্যুট তৈরি হয় ইন্দোনেশিয়া এবং মেক্সিকো থেকে।

চশমার গ্লাস এবং লেন্স তৈরি করা হয় চীনে। এছাড়া আয়না, গৃহস্থালী পণ্য, কিচেন আইটেম এবং লাইটিং সিস্টেমও চীনেই তৈরি করে থাকেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।  

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বিক্রির জন্য হোটেল পেন ও প্রসাধন সামগ্রীও তিনি তৈরি করিয়ে থাকেন চীন এবং তাইওয়ান থেকে।

শুধু ট্রাম্প গ্রুপের পণ্যই নয়, তার স্ত্রী ইভানকা’র পরিচালিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানও যুক্তরাষ্ট্র থেকে কোনো পণ্য উৎপাদন করে না। তার প্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত পণ্যও আসে চীন, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম, ভারত, বাংলাদেশ এবং ইথিওপিয়া থেকে।

ট্রাম্প এবং তার পরিবারের এই হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র প্রীতির নমুনা! তাহলে দেশের জন্য প্রেসিডেন্ট হিসেবে কি করতে পারবেন ট্রাম্প? জনগণের প্রতি সেই প্রশ্নই ছুঁড়ে দিয়েছে গণমাধ্যমটি!

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

কেবিএ

 
.


আলোচিত সংবাদ