মুসলিমবিদ্বেষী রিটুইটের জন্য ক্ষমা চাইতে প্রস্তুত ট্রাম্প!

ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

মুসলিমবিদ্বেষী রিটুইটের জন্য ক্ষমা চাইতে প্রস্তুত ট্রাম্প!

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:১৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০১৮

মুসলিমবিদ্বেষী রিটুইটের জন্য ক্ষমা চাইতে প্রস্তুত ট্রাম্প!

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, টুইটারে মুসলিমবিদ্বেষী ভিডিও শেয়ার করার জন্য প্রয়োজনে তিনি জনসমক্ষে ক্ষমা প্রার্থনা করবেন।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যের আইটিভি চ্যানেলের একটি অনুষ্ঠানে কথা বলার সময় ট্রাম্প ক্ষমা প্রার্থনার এই ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

ট্রাম্প ওয়ার্ল্ড ইকনোমিক ফোরামে অংশগ্রহণ করতে বর্তমানে সুইজ্যারল্যান্ডের ডাভোসে আছেন।

উল্লেখ্য, গত বছর নভেম্বর মাসে ট্রাম্প তার টুইটার একাউন্টে তিনটি মুসলিমবিদ্বেষী ভিডিও শেয়ার করেন। ভিডিওগুলো প্রথমবার টুইটারে পোস্ট করেন ব্রিটেনের চরম ডানপন্থী দল ব্রিটেন ফার্স্ট-এর ডেপুটি লিডার জেডা ফ্র্যান্সেন।

ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের মসজিদগুলোতে ব্রিটেন ফার্স্টের সদস্যদের নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

ট্রাম্প তার টুইটারে ভিডিওগুলো শেয়ার করার পর পৃথিবীজুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মেও ট্রাম্পের দায়িত্বজ্ঞানহীনতার তীব্র সমালোচনা করেন।

ওই সময় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর অফিস থেকে জানানো হয়, ‘ব্রিটেন ফার্স্ট মিথ্যা ছড়িয়ে ও সংঘাতের উস্কানি দিয়ে জনগণের মধ্যে বিভেদ তৈরি করতে চায়।’

আইটিভিকে ট্রাম্প বলেন, তিনি ব্রিটেন ফার্স্ট সম্পর্কে জানতেন না, এবং কোনো জটিলতা সৃষ্টির উদ্দেশ্য তার ছিল না।

‘আপনি যদি বলেন যে তারা জঘন্য, বর্ণবাদীদের দল, তাহলে আপনারা চাইলে আমি অবশ্যই ক্ষমা প্রার্থনা করব’ বলেন ট্রাম্প।

তিনি বলেন, ‘যাদের সাথে আপনার পরিচয় হবে তাদের মধ্যে আমিই সবচেয়ে কম বর্ণবাদী ব্যক্তি। আমি কোনভাবেই কাউকে সমর্থন দিচ্ছিলাম না।’

থেরেসা মে ও ব্রিটেনের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, ‘আপনাদের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আমার খুব ভালো সম্পর্ক রয়েছে। তিনি অসাধারণ কাজ করছেন। আমাদের সম্পর্ক খুব ভালো, কিন্তু অনেকেই তা মনে করেন না।’

যুক্তরাজ্যেকে ব্যাপক সামরিক সহায়তা দেয়ার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কিছু হলে আমরা আপনাদের প্রতিরক্ষায় এগিয়ে আসব, তবে আশা করছি তেমন কিছু ঘটবে না। আমি যুক্তরাজ্যকে ব্যাপকভাবে সমর্থন করি।’

এমআর/এমএসআই