‘ভারতের সাথে দর কষাকষির ক্ষমতা সরকারের নেই’

ঢাকা, শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

‘ভারতের সাথে দর কষাকষির ক্ষমতা সরকারের নেই’

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৮:০৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০১৯

‘ভারতের সাথে দর কষাকষির ক্ষমতা সরকারের নেই’

‘দর-কষাকষি’র সক্ষমতা নেই বলেই সরকার ভারতের সঙ্গে অমীমাংসিত সমস্যার সমাধান আনতে পারছে না বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেছেন, ‘আমরা ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলতে তো বলি না, কারণ তাদের সাথে আমাদের দ্বন্দ্ব নেই। কিন্তু সমস্যা হলো আজকে এমন একটা সরকার, যে আমাদের সমস্যাগুলো নিয়ে ভারতের সঙ্গে কথা বলতে পারে না।’

শনিবার রাজধানীতে এক সেমিনারে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, ‘সেই শক্তি এবং দর-কষাকষির সক্ষমতা সরকারের নেই। কারণ, ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য সে তাদের ওপর নির্ভর করে— এটা হচ্ছে মূল কথা, এটা বাস্তবতা। এ বিষয়গুলো যদি আমরা উপলব্ধি করতে পারি যে সরকার যত দিন থাকবে, ততই বাংলাদেশের স্বার্থ ক্ষুণ্ন হবে, একে একে নষ্ট হবে এবং বাংলাদেশ নিঃস্ব হয়ে যাবে।

‘ফেনী নদীর পানি চুক্তি: বাংলাদেশের সম্ভাব্য বিপর্যয়’ শীর্ষক সেমিনারটির আয়োজন করে অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (অ্যাব)।

ফখরুল বলেন, ফেনী নদী বাংলাদেশের, এটা অভিন্ন নদী নয়। সরকার এই নদী থেকে ভারতকে পানি নেয়ার অনুমতি দিয়েছে।

‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী বলছেন, খাওয়ার পানি চাইলে পানি দেব না? ভালো কথা, পানি দেবেন। তা আমাদের যে লাখ লাখ মানুষ তিস্তার অববাহিকায় পুরোপুরিভাবে নিঃস্ব হয়ে যাচ্ছে, তাদের ফসল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে, জীবন-জীবিকা ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে, সে বিষয়ে আপনি কোনো কথা বলেননি,’ যোগ করেন তিনি।

বর্তমান সরকার সংসদে কোনো চুক্তিই উপস্থাপন করছে না—এ অভিযোগ করে ফখরুল বলেন, ‘এটা এমন একটা সংসদ যে চুক্তিগুলো নিয়েও একটা আলোচনা হয়নি। আমাদের সংবিধানে বলা আছে, যেকোনো চুক্তি সংসদে উপস্থাপন করতে হবে। সেখানে আলোচনা করতে হবে এবং সেটাকে রেটিফাই করতে হবে সংসদে। সেটা কখনোই করা হয় না।’

‘বিদেশে কর্মরত নারী শ্রমিকদের প্রসঙ্গে’ মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই যে সৌদি আরব থেকে আমাদের নারী শ্রমিকেরা যারা ফিরে আসছেন, তার মধ্যে ৫৩ জন নিহত হয়েছেন, অনেকে ফিরে এসেছেন। সবচেয়ে মারাত্মক হচ্ছে যে আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন যে এটা স্বাভাবিক ব্যাপার, সংখ্যা কম। তার আগেও ভারতের সঙ্গে সম্পর্কের ব্যাপারে উনি (পররাষ্ট্রমন্ত্রী) বলেছেন যে আমাদের সম্পর্ক এমন সুন্দর জায়গায় গেছে, আমি সেটা বলতে চাই না।’

অ্যাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রিয়াজুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এ জেড এম জাহিদ হোসেন, পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক মোসাদ্দেক হোসেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকাবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক জি কে মোস্তাফিজুর রহমান, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের এম আবদুল্লাহ, এগ্রিচালচারিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের শামীমুর রহমান, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের কাদের গনি চৌধুরী, অ্যাবের আবদুস সালাম, আশরাফ উদ্দিন, গোলাম মাওলা, এ কে এম জহিরুল ইসলাম ও সাহাদাত হোসেন বক্তব্য দেন।

সেমিনারে অ্যাবের সাধারণ সম্পাদক হাছিন আহমেদ, জাতীয়তাবাদী সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলামসহ প্রকৌশলী নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

ওএস/এসবি

 

রাজনীতি: আরও পড়ুন

আরও