আ’লীগের নেতারাও নরজদারিতে: কাদের

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ | ২ কার্তিক ১৪২৬

আ’লীগের নেতারাও নরজদারিতে: কাদের

পরিবর্তন প্রতিবেদক ২:২৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯

আ’লীগের নেতারাও নরজদারিতে: কাদের

ফাইল ছবি

শুধু ছাত্রলীগ বা যুবলীগের নেতারাই নজরদারিতে আছেন তা নয়, মূল দল আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকেও নজরদারিতে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডি রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

কাদের বলেন, কোনো ধরনের অপকর্মে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। নানা অপকর্মে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ায় শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা বেড়েছে।

এসময় বিএনপি ক্যাসিনোর শহর বানিয়েছিল বলে অভিযোগ করেন তিনি।

কাদের বলেন, এমন নয় যে নির্বাচনকে সামনে রেখে আমরা কিছু ব্যবস্থা নিচ্ছি। আমরা প্রথম ৮-৯ মাসেও ব্যবস্থা নিয়েছি। তাদের (বিএনপি) সময় এই ক্যাসিনোগুলো ছিল। তখন তো তারা কোনো অ্যাকশন নেয়নি।

তিনি বলেন, আমার বক্তব্য হচ্ছে বিএনপি যা করতে পারেনি সেটা আওয়ামী লীগ সরকার করছে। খালেদা জিয়া সরকার যা পারেনি, সেটা শেখ হাসিনা সরকার করছে। এতে সরকার এবং দলের ভাবমূর্তি বাড়ছে। সেটাই বিএনপির গাত্রদাহের কারণ।

তিনি বলেন, সারা দেশে সব দোষীদের বিরুদ্ধে সময়মতো ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কাদের বলেন, ছাত্রলীগ-যুবলীগ কোনো বিষয় নয়, আওয়ামী লীগের যদি কেউ অপরাধ করে সেটাও খোঁজ-খবর তিনি (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) নিচ্ছেন। দুর্নীতি, ডিসিপ্লিন, র‌্যাগিং এসবের জন্য কিন্তু অনেকেই নজরদারিতে আছে, সময়মতো ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ছাত্রলীগের দুইজনকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে, যুবলীগের একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ছাড়া ক্যাসিনো ক্যান্ডির যে অভিযান। এটা ঢালাওভাবে ছাত্রলীগ আর যুবলীগের বিরুদ্ধে নয়।

কাদের বলেন, ছাত্রলীগ-যুবলীগে বহু ত্যাগী নেতাকর্মী আছে, তারা অনেক ভালো ভালো কাজও করছে। এখানে দুর্নীতি, অনিয়ম-বিশৃঙ্খলার সঙ্গে যারা জড়িত,যাদের আচরণে পার্টির মনোভাব ক্ষুণ্ন হচ্ছে, ঠিক তাদের বিরুদ্ধেই কেইস টু কেইস অ্যাকশন নেওয়া হচ্ছে, যা আগেও নেওয়া হয়েছিল।

তিনি আরো বলেন, দুদকও অনেকের বিরুদ্ধে অ্যাকশন নিতে শুরু করেছে। দুর্নীতির অভিযোগ থাকলে কারও কারও বিরুদ্ধে চার্জশিটও দেওয়া হয়েছে। কারও কারও কনভিকশনও হয়েছে।

ওএস/আরপি/এসবি

 

রাজনীতি: আরও পড়ুন

আরও