'চলন্তিকা বস্তিবাসীর পুনর্বাসন সরকারকেই করতে হবে'

ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

'চলন্তিকা বস্তিবাসীর পুনর্বাসন সরকারকেই করতে হবে'

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১:৩৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৯

'চলন্তিকা বস্তিবাসীর পুনর্বাসন সরকারকেই করতে হবে'

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, মিরপুরের চলন্তিকা বস্তিতে সর্বস্ব হারানো হত-দরিদ্র মানুষদের সরকারি উদ্যোগেই পুনর্বাসন করতে হবে। হত-দরিদ্র এই মানুষদের ভোটেই সরকার নির্বাচিত হয়। অগ্নিকাণ্ডে সর্বহারা এই মানুষগুলোই আমাদের মূল শক্তি।

মঙ্গলবার অগ্নিকাণ্ডে ভস্মিভূত মিরপুরের চলন্তিকা বস্তির মানুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করার সময় তিনি এসব কথা বলেন।

জি এম কাদের বলেন, সাধারণ মানুষের ট্যাক্সের টাকায় রাষ্ট্রীয় বাজেট তৈরী হয়। আর বাজেট দুঃস্থ ও হতদরিদ্র মানুষের কল্যাণে বরাদ্দ থাকে। সরকারের অনেক অনেক সুবিধা থাকে যা নিঃস্ব মানুষের কল্যাণে কাজে আসে। কিন্তু আমরা নেতা-কর্মীদের দেয়া সহায়তা নিয়ে আপনাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। আমাদের সাধ্যমত সহায়তা নিয়ে দুঃস্থ মানুষের পাশে সব সময় থাকবো।

তিনি আরো বলেন, সংসদেও আমরা অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের দাবিতে কথা বলবো। আর জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদেরও ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে থাকার নির্দেশ দিচ্ছি।

জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চীফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত চলন্তিকা বস্তির জমি সরকারি খাস জায়গা। এই জমি কারো দখলে থাকতে পারেনা। এই জমিতে যারা অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, সেই হতদরিদ্র মানুষদের তালিকা করে তাদের পুনর্বাসনের দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে।

তিনি আরো বলেন, পল্লীবন্ধু এরশাদ সব সময় হতদরিদ্র ও বিপন্ন মানুষের পাশে থেকেছেন। আমরাও পল্লীবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে দুঃস্থ মানুষদের পাশে থাকবো আজীবন।

এসময় জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান আমানত হোসেন, মোস্তাকুর রহমান মোস্তাক, যুগ্ম মহাসচিব সুলতান মাহমুদ সেলিম, যুগ্ম দফতর সম্পাদক এম.এ. রাজ্জাক খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পিএসএস

 

রাজনীতি: আরও পড়ুন

আরও