মানুষের মনে ঈদ আনন্দ নেই : মোশাররফ

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

মানুষের মনে ঈদ আনন্দ নেই : মোশাররফ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ২:২৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০১৯

মানুষের মনে ঈদ আনন্দ নেই : মোশাররফ

মানুষের মনে যে ঈদের আনন্দ, সেই ঈদের আনন্দ নেই এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

তিনি বলেন, ‘আজকে সারাদেশের বেশিরভাগ এলাকা বন্যা কবলিত, ডেঙ্গু মহামারী আকার ধারণ করেছে, ডেঙ্গু আতঙ্কে দেশের বেশিরভাগ মানুষ আতঙ্কিত। মানুষের মনে যে ঈদের আনন্দ, সেই ঈদের আনন্দ নেই। বিএনপির পরিবারের মধ্যেও ঈদের আনন্দ নেই।’

সোমবার বেলা ১২টার দিকে রাজধানীর শেরে বাংলানগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়া্উর রহমানের সমাধিতে ফুলে দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। এর আগে দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে জিউয়ার রহমানের রুহের মাগফেরাত কামনা কররে মোনাজাত করা হয়।

মোশাররফ হোসেন বলেন,  আজকে এই দিনে  আমাদের দেশের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাগারে । তিনি অন্যায়ভাবে সেখানে নিপতিত। আমাদের নেত্রী, দলের ভারপ্রাপ্ত তারেক রহমান ও বিএনপির পক্ষ থেকে দেশের জনগণকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

তিনি বলেন,  আমরা এখানে এসেছি অত্যান্ত ভারাক্রান্ত মন নিয়ে । আজকে আমাদের নেত্রী  পাশে নেই। তাকে অন্যায়ভাবে নেত্রীকে কারাগারে রাখা হয়েছে।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, সকল ক্ষেত্রে সরকারের অদক্ষতা, ব্যর্থতা উদাসিনতার জন্য মানুষ সঠিকভাবে ঈদ করতে পারছে না। যারা ঢাকা থেকে বাড়িতে যাচ্ছিল, সড়কে অব্যবস্থাপনার কারণে অনেকে বাড়ি পৌঁছাতে পারেননি। ১৪/১৫ ঘণ্টা পরে ট্রেন ছেড়েছে। এমন অব্যবস্থাপনা আগে হয়নি।

দেশে একটি গণতান্ত্রিক সরকার নেই বলে সকল ক্ষেত্রে অব্যবস্থা দাবি করে মোশাররফ বলেন, দেশে একটা নৈরাজ্য চলছে। এই নৈরাজ্য অব্যবস্থা থেকে একটি গণতান্ত্রিক সরকার জনগণকে পরিত্রাণ দিতে পারে। আর সেই গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে হলে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। গণতন্ত্রের মা খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে গণতন্ত্র ফিরে আসবে না।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, যুগ্ম-মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, নবী উল্লাহ নবী, কাজী আবুল বাশার, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূইয়া জুয়েল,  চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান, শামসুদ্দিন দিদার প্রমুখ।

উল্লেখ্য, প্রতি বছর খালেদা জিয়া ঈদের দিন জিয়ার কবরে ফুল দিতেন। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে তিনি কারাগারে যাওয়ার পর বিএনপির মহাসচিবসহ জ্যেষ্ঠ নেতারা এই কর্মসূচিটি চালিয়ে যাচ্ছেন।

কারাগারে যাওয়ার পর ডায়া্বেটিকস, আর্থারাইটিসসহ নানা রোগে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে গত ১ এপ্রিল খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউতে ভর্তি করা হয়।

জিয়ার কবর জিয়ারতের পর নেতৃবৃন্দ বনানীতে আরাফাত রহমান কোকোর কবরেও জিয়ারত করেন।

এমএইচ

 

রাজনীতি: আরও পড়ুন

আরও