দেশ ও মানুষের কল্যাণে নিবেদিত ছিলেন এরশাদ: জিএম কাদের

ঢাকা, ২৪ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

দেশ ও মানুষের কল্যাণে নিবেদিত ছিলেন এরশাদ: জিএম কাদের

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, ৮:৫১ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০১৯

দেশ ও মানুষের কল্যাণে নিবেদিত ছিলেন এরশাদ: জিএম কাদের

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বাংলাদেশের সকল ধর্ম ও জাতির মানুষের কল্যাণে অবদান রেখেছিলেন বলে মনে করেন তার ছোট ভাই গোলাম মোহাম্মদ কাদের।

মঙ্গলবার বাদ আসর গুলশান আজাদ মসজিদে এরশাদের কুলখানীতে গোলাম মোহাম্মদ কাদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশ ও মানুষের কল্যাণে নিবেদিত ছিলেন এরশাদ। তাই  তার ৪টি জানাজায় তিল ধারণের ঠাঁই ছিলো না। লাখো মানুষ তার জানাজায় অংশ নিয়ে প্রমাণ করেছে তার প্রতি তাদের ভালোবাসা।

জিএম কাদের বলেন, প্রতি মুহূর্তে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এছাড়া সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের চিকিৎসকদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তিনি।

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের জন্য দোয়া করার জন্য দেশবাসীর প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন কাদের।

এসময় সত্তর দশকের কিংবদন্তী ছাত্রনেতা নুর-ই আলম সিদ্দিকী বলেন, দেশ ও মানুষের প্রতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মমত্মবোধ অতুলনীয়। আমি তার ব্যবহারে মুগ্ধ ও বিমোহিত হয়েছি। হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ কোমল হৃদয়ের মানুষ ছিলেন। শিশুদের প্রতি তার ভালোবাসা অসাধারণ।

নুর-ই আলম সিদ্দিকী হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন।

আওয়ামী লীগ নেতা তোফায়েল আহমেদ বলেন, রাজনীতিতে মত ও পথের অমিল ছিলো। কিন্তু আমি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে শ্রদ্ধা করতাম। তিনিও আমাকে অনেক স্নেহ করতেন।

তিনি আরো বলেন, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ একজন বিনয়ী মানুষ ছিলেন, মার্জিত স্বভাবের অধিকারী ছিলেন তিনি। তিনিও পল্লীবন্ধুর রুহের মাগফিরাত কামনা করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান বেগম রওশন এরশাদ, মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা, ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, এবিএম রহুল আমিন হাওলাদার, কাজী ফিরোজ রশীদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবুল, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, গোলাম কিবরিয়া টিপু, অ্যাড. শেখ সিরাজুল ইসলাম, ফখরুল ইমাম, মুজিবুল হক চুন্নু, হাবিবুর রহমান, এসএম ফয়সল চিশতী, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, মো. আজম খান, এটিইউ তাজ রহমান, সোলায়মান আলম শেঠ, আলহাজ আতিকুর রহমান আতিক, নাসরিন জাহান রতনা, মেজর মো. খালেদ আখতার (অব.), লে. জে. (অব.) মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ।

এছাড়া এরশাদের ছেলে রাহাগির আল মাহি (সাদ এরশাদ) ও এরিক এরশাদও উপস্থিত ছিলেন।

বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মো. নাসিম, সাবেক চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, সাবেক পানিসম্পদ মন্ত্রী এবিএম গোলাম মোস্তফা, সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী নাসিম উদ্দিন আল আজাদ, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পরিচালক ডা. জাফর উল্লাহ চৌধুরী, ডা. নাজিম উদ্দিন, জেপি সাধারণ সম্পাদক শেখ শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

এমএইচ/এইচআর

 

রাজনীতি: আরও পড়ুন

আরও