পুলিশ হেড কোয়ার্টারে ভোট কারচুপির ষড়যন্ত্র হচ্ছে: ফখরুল

ঢাকা, শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ | ১ পৌষ ১৪২৫

পুলিশ হেড কোয়ার্টারে ভোট কারচুপির ষড়যন্ত্র হচ্ছে: ফখরুল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৬:৫৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৮

পুলিশ হেড কোয়ার্টারে ভোট কারচুপির ষড়যন্ত্র হচ্ছে: ফখরুল

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট কারচুপির জন্য পুলিশ হেড কোয়ার্টারে বসে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার বিকেলে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ অভিযোগ করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, এর আগে আমরা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দেখেছি পুলিশকে ব্যবহার করে নির্বাচনে কারচুপি করা হয়েছে। এবার জাতীয় নির্বাচনেও সেই রকম পরিকল্পনা করা হচ্ছে। পুলিশ হেড কোয়ার্টারে বসে এই পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমরা দাবি জানিয়েছিলাম বিতর্কিত পুলিশ কর্মকর্তাদের বদলি করতে হবে। অথবা তাদের ক্লোজ করতে হবে। কিন্তু তা করেনি। এমনকি হেড কোয়ার্টারে বসে যারা নির্বাচনে কারসাজি করার পরিকল্পনা করছে তাদের প্রত্যাহার করা হয়নি।

তিনি বলেন, আমরা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। কিন্তু এই নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ করা হচ্ছে। নির্বাচন কমিশনের যে দায়িত্ব রয়েছে তার কোনটিই পালন করছেন না তারা। তফসিল ঘোষণার পরও বিরোধী নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। জামিন নিতে গেলে তাদের জামিনও দেয়া হচ্ছে না।

মির্জা ফখরুল বলেন, সকল দলের জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরির দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। কিন্তু তারা এর কোনো দায়িত্ব পালন করছে না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমাদের বক্তব্য খুবই স্পষ্ট। বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার ও নির্যাতন বন্ধ করা না হলে নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হবে না। আশা করব নির্বাচন কমিশনের বোধদয় হবে। তারা জেগে উঠবে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা নিরপেক্ষ প্রশাসন চাই। নির্বাচনের দশদিন আগে থেকে ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতাসহ সেনাবাহিনী মোতায়েন চাই।

চট্টগ্রাম বিভাগের ৩৬টি আসনে ২৬৯ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী সাক্ষাৎকার দিয়েছেন বলেও জানান মির্জা ফখরুল।

এমএইচ/এসবি