‘তরুণরা এগিয়ে আসলে সরকারের বিদায় কেউ ঠেকাতে পারবে না’

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৬ আশ্বিন ১৪২৫

‘তরুণরা এগিয়ে আসলে সরকারের বিদায় কেউ ঠেকাতে পারবে না’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৯:৪১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮

‘তরুণরা এগিয়ে আসলে সরকারের বিদায় কেউ ঠেকাতে পারবে না’

ক্ষমতাসীন সরকারকে স্বৈরাচার আখ্যা দিয়ে যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা (বি) চৌধুরী বলেছেন, তরুণরা এগিয়ে আসলে সরকারের বিদায় কেউ ঠেকাতে পারবে না।

বুধবার গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে বিকল্পধারার সহযোগী সংগঠন প্রজন্ম বাংলাদেশ আয়োজিত ‘রাজনৈতিক আন্দোলনে অহিংস কর্মসূচি’ শীর্ষক কর্মশালায় তিনি এ কথা বলেন।

বি চৌধুরী বলেন, ‘আমি তরুণদের নিয়ে অত্যন্ত আশাবাদী। বিশ্বে যত বড় বড় কল্যাণকর কাজ হয়েছে সব তরুণদের হাত ধরে হয়েছে। আমাদের ভাষা আন্দোলন, স্বাধীনতা আন্দোলন সব তরুণদের হাত ধরে হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমানেও কোটা সংস্কার আন্দোলন করছে তরুণরা। নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলন করেছে ১৪/১৫ বছরের কিশোররা। স্কুলের ছোট ছোট ছেলেমেয়ে রাজপথে দাঁড়িয়ে যখন বলেছে- উই ওয়ান্ট জাস্টিজ, তখন গোটা দেশ তাদের পাশে দাঁড়িয়েছিল। সারাবিশ্ব অবাক বিস্ময়ে তাকিয়ে দেখেছে।’

সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘এ আন্দোলন ছিল সম্পূর্ণ অহিংস ও শান্তিপূর্ণ। তারপরও সরকার তাদের পুলিশ দিয়ে লাঠিপেটা করেছে। তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘এই চরম স্বেচ্ছাচার ও স্বৈরাচারকে আর সহ্য করা যায় না। তরুণরা এগিয়ে আসলে এই স্বেচ্ছাচার সরকারের বিদায় কেউ ঠেকাতে পারবে না। জ্বালাও-পোড়াও এবং হত্যা-গুম ও গ্রেফতারের সহিংস রাজনীতির স্থান দখল করে নিতে পারে অহিংস গণঅভ্যুত্থান।’

প্রজন্ম বাংলাদেশের প্রধান বিকল্পধারার যুগ্ম-মহাসচিব মাহী বি চৌধুরীর পরিচালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- বিকল্পধারার ভাইস চেয়ারম্যান মঞ্জুর রাশেদ, যুগ্ম-মহাসচিব আবদুর রউফ মান্নান, প্রজন্ম বাংলাদেশের নতুন সদস্য ইঞ্জিনিয়ার কাজী মো. মাসুদ আলম প্রমুখ।

এমএইচ/এমএসআই