কাদেরের কাছে জোর করে ভালোবাসা চান ফখরুল!

ঢাকা, শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ | ১ পৌষ ১৪২৫

কাদেরের কাছে জোর করে ভালোবাসা চান ফখরুল!

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৮:৫০ অপরাহ্ণ, জুন ২৪, ২০১৮

কাদেরের কাছে জোর করে ভালোবাসা চান ফখরুল!

নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে বিএনপির সঙ্গে প্রেম নয়- আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবাদুল কাদেরের এমন ব্ক্তব্যের জবাবে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, উনাকে (ওবায়দুল কাদের) প্রেম করতেই হবে। প্রেম না হলে রাজনীতি করা যাবে না।

রোববার বিকালে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমি জানি যে, উনি (ওবায়দুল কাদের) ভালো কবিতা লিখতেন একসময়। তার বেশ কিছু কবিতা বেরিয়েছিল। আমরা জানি- যারা ভালো কবিতা লিখেন, তারা প্রেম করেন। প্রেমবিহীন কবিতা হয় না। প্রেম না হলে কিন্তু কবিতা-গল্প-সংস্কৃতি আসে না।’

প্রেম না হলে তো রাজনীতিও করা যাবে না- উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘মানুষের প্রতি ভালোবাসা, দেশের প্রতি ভালোবাসা সেটাও করা যাবে না। সুতরাং প্রেম তো করতেই পারে এবং ওবায়দুল কাদের সাহেবকেও প্রেম করতে হবে জনগণের সঙ্গে। কারণ এই দেশটাতো সকলের, কারো পৈত্রিক সম্পত্তি নয়।’

গাজীপুর সিটি নির্বাচন নিয়ে কথা বলতে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে আরেক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গাজীপুরে সবগুলো কেন্দ্রে আমাদের এজেন্ট নির্ধারিত হয়েছে- একজন নয়, তিন-চারজন করে।’

তিনি বলেন, ‘এখন তারা (এজেন্টরা) থাকতে পারবে কিনা এটা তো নির্ভর করবে নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতার ওপরে। সরকারি দল জরবদস্তিতে সবাইকে বের করে দেবে কিনা তার ওপরে।’

এসপি যেন নিজেই প্রার্থী

এসময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘গাজীপুরের আমি গতকাল গিয়েছিলাম। আমি যেটা প্রত্যক্ষ করেছি- আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আসলে নেতাকর্মীরা নির্বাচনটা পরিচালনা করছে না। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এটা পরিচালনা করছেন ওখানকার এসপি (পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ)। তার অধীনে যে পুলিশ ফোর্স, এসবি, ডিবি, তারা নির্বাচনটা পরিচালনা করছে।’

তিনি বলেন, ‘গতকাল যখন আওয়ামী লীগের প্রার্থী পুলিশের গাড়িতে করে ঘুরে বেড়াচ্ছেন, তখন ওখানকার এসপির দায়িত্বটা কী ছিল? নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব কী ছিল। কেউ কি এসপিকে জিজ্ঞাসা করেছেন- আপনার পুলিশের গাড়িতে করে সরকারি দলের প্রার্থী কিভাবে ঘুরে বেড়াচ্ছেন? তাহলে কী বলার আছে!’

আমীর খসরু আরও বলেন, ‘পুরো নির্বাচনটা পরিচালনা করছে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পুলিশ বিভাগ, এসবি-ডিবি। মনে হচ্ছে-  প্রার্থী আওয়ামী লীগের নন, এসপি নিজেই প্রার্থী। এরকম একটা ভাবসাব দেখা গেছে। ভোটারদের প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়িয়েছে পুলিশ।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, ড. আবদুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, চেয়ারপারসনের উপেদষ্টা আবদুল কাইয়ুম, গাজীপুর জেলা সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি প্রমুখ।

এমএইচ/এমএসআই