বাইসাইকেলে সিএমএম আদালতে গেল খালেদার জামিনাদেশ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৯ আশ্বিন ১৪২৫

বাইসাইকেলে সিএমএম আদালতে গেল খালেদার জামিনাদেশ

হাইকোর্ট প্রতিবেদক ৭:৪৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৩, ২০১৮

বাইসাইকেলে সিএমএম আদালতে গেল খালেদার জামিনাদেশ

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেয়া হাইকোর্টের জামিনের আদেশের কপি মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে পৌঁছেছে।

মঙ্গলবার বিকেলে জামিনের আদেশ নিয়ে হাইকোর্ট থেকে সিএমএম আদালতের উদ্দেশে বাইসাইকেলযোগে রওনা হন আদান-প্রদান শাখার অফিস সহায়ক (এমএলএসএস) মো. তাইজ উদ্দিন।

জানতে চাইলে খালেদা জিয়ার অন্যতম আইনজীবী সগীর হোসেন লিয়ন পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, নিয়ম অনুসারে সিএমএম অফিস তা গ্রহণ করার পর কারা কর্তৃপক্ষের কাছে জামিননামা পাঠাবে। জামিননামা পেলে এই মামলায় মুক্তি পাবেন খালেদা জিয়া। তবে তা আজ কারা কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছাবে কিনা জানি না।

হাইকোর্টের দেয়া এই জামিন আদেশের বিরুদ্ধে বুধবার আপিল শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে। এই অবস্থায় জামিন আদেশের কপি কারাগারে পৌঁছালেও মুক্তি পাওয়ার বিষয়ে ভিন্নমত রয়েছে আইনজীবীদের।

এদিকে কুমিল্লার মামলায়ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া জেলে আছেন বলে মনে করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

তার মতে, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় জামিন পেলেও কুমিল্লার নাশকতার মামলায় জামিন না পাওয়া পর্যন্ত খালেদা জিয়া কারামুক্ত হতে পারবেন না।

চেম্বার আদালতে মঙ্গলবার খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত চাওয়া আবেদনের ওপর শুনানির পর এনিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে অ্যাটর্নি জেনারেল একথা বলেন।

প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন রাজধানীর বকশীবাজারে স্থাপিত অস্থায়ী পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান। রায় ঘোষণার পরপরই তাকে ওই দিন বিকেলে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

এমএ/এমএসআই

আরো পড়ুন...
মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কটূক্তির মামলায় খালেদার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন পিছিয়েছে
খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত চেয়ে দুদকের আবেদন
চ্যারিটেবল মামলায় খালেদাকে হাজির করতে ওয়ারেন্ট ইস্যু