খালেদার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পেলেন না ৭ চিকিৎসক

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫

খালেদার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পেলেন না ৭ চিকিৎসক

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ২:৫৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮

খালেদার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পেলেন না ৭ চিকিৎসক

বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পাননি সাত চিকিৎসক। বুধবার সকালে ওই সাত চিকিৎসক খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে যান। এরপর জেল সুপার বরাবর দরখাস্ত করা হলেও তাদের খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হয়নি।

সাত চিকিৎসক হলেন, অধ্যাপক ডা. সিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ, অধ্যাপক ডা. মো. শাহাব উদ্দিন, অধ্যাপক ডা. মো. আবদুল কুদ্দুস, অধ্যাপক ডা. এস এম রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, সহযোগী অধ্যাপক ডা. সাইফুল ইসলাম সেলিম, ডা. মো. ফাওয়াজ হোসেন শুভ ও ডা. মনোয়ারুল কাদির বিটু।

বুধবার দুপুরে এই তথ্য নিশ্চিত করে অধ্যাপক ডা. এস এম রফিকুল ইসলাম বাচ্চু পরিবর্তনকে বলেন, ‘সকালে আমরা সাতজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে পুরানো ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন জেলগেটে যাই। এরপর আমরা এই উদ্দেশ্যে জেল সুপার বরাবর একটা দরখাস্ত দেই। কিন্তু পরবর্তীতে ডিআইজি প্রিজন আমাদের জানান যে, আমরা অনুমতি পাচ্ছি না।’

প্রসঙ্গত, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। এরপর থেকেই ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় অপর একটি মামলা করে দুদক।

২০১০ সালের ৫ আগস্ট তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর-রশীদ। ২০১৪ সালের ১৯ মার্চ তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক বাসুদেব রায়। 

বৃহস্পতিবারের রায়ে তারেক রহমানসহ অন্য আসামিদের ১০ বছর করে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড করা হয়। মামলার অন্য আসামিরা হলেন— মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।

কেইবিডি/আরপি