সন্ত্রাস দমনে যৌথভাবে কাজ করবেন ট্রাম্প-মোদি

ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৪ কার্তিক ১৪২৬

সন্ত্রাস দমনে যৌথভাবে কাজ করবেন ট্রাম্প-মোদি

পরিবর্তন ডেস্ক ২:১১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯

সন্ত্রাস দমনে যৌথভাবে কাজ করবেন ট্রাম্প-মোদি

সন্ত্রাস বিশেষ করে ‘ইসলামী মৌলবাদী’ সন্ত্রাস তথা সীমান্ত সুরক্ষায় যৌথভাবে কাজ করবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। স্থানীয় সময় রোববার বিকালে যুক্তরাষ্ট্রের হাউস্টনে ‘হাউডি মোদি’ শীর্ষক সমাবেশে দেওয়া ভাষণে এসব কথা বলেন ট্রাম্প। অন্যদিকে, নরেন্দ্র মোদিও তার ভাষণে দুই দেশের এক সঙ্গে কাজ করার কথা বলেন। পাশাপাশি সন্ত্রাসবাদ ছড়াতে পাকিস্তানকেও দায়ী করেন তিনি।

ট্রাম্প বলেন, সন্ত্রাসবাদ দুই দেশের কাছেই বড় চ্যালেঞ্জ। নিজেদের সীমান্ত তাই সুরক্ষিত করার প্রয়োজন রয়েছে দুই দেশেরই। আমেরিকা বোঝে সীমান্ত সুরক্ষা কতটা জরুরি। ভারতের ক্ষেত্রেও তা সমানভাবে প্রযোজ্য।

মোদির প্রশংসা করে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ৩ কোটি গরীবের ক্ষমতায়ন ঘটিয়েছেন ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী।আমেরিকা সব সময় ভারতের পাশে রয়েছে। মোদির নেতৃত্বে ভারতের শক্তিবৃদ্ধি ঘটেছে, তাই তিনি কাজ করতে চান মোদির সঙ্গে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, হোয়াইট হাউজের প্রকৃত বন্ধু মোদি। শুধু তাই নয়, ওয়াশিংটন ডিসির সবচেয়ে বিশ্বস্ত বন্ধু মোদি।

মোদি ডাকলেই ভারত সফরে যাবেন জানিয়ে ট্রাম্প বলেন, প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। সেই সম্পর্ক যথেষ্ট মজবুত। তাই অনুপ্রবেশ নিয়ে ভারতের সমস্যা বোঝে আমেরিকা। অনুপ্রবেশকারীদের কোনো জায়গা নেই আমেরিকায়। অবৈধ অভিবাসীদের বদলে নিজেদের দেশের নাগরিকদের স্বার্থ রক্ষা করা বেশি জরুরি।

ট্রাম্প জানান, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে একজোট হয়ে কাজ করছে ভারত ও আমেরিকা, ভবিষত্যেও সেটা করবে। দুই দেশের সম্পর্ক এক অন্য মাত্রায় পৌঁছেছে বলেও দাবি তার।

এদিকে, ট্রাম্প যখন সীমান্ত সন্ত্রাসের কথা বলেছেন তখন সেই সুযোগ হাতছাড়া করেননি মোদি। কৌশলে পাকিস্তানের নামে নানা কথা বলেন তিনি। কাশ্মির ইস্যুতে পাক-ভারত সম্পর্ক যখন তলানিতে তখন সুযোগ বুঝে পাকিস্তানের ব্যাপারে ট্রাম্পের দৃষ্টি আকর্ষণ করলেন মোদি।

বললেন, ‘৯/১১ হোক বা ২৬/১১, ষড়যন্ত্রকারীদের কোথায় খোঁজ মিলেছে?’ মনে করিয়ে দিলেন সেই পাকিস্তানেই মিলেছিল মোস্ট ওয়ান্টেড ওসামা বিন কাদেনের খোঁজ।

কাশ্মীর সংক্রান্ত ৩৭০ ধারার প্রসঙ্গ নিয়েও কথা বলেন মোদি। তিনি বলেন, ৩৭০ ধারার জন্য অনকে উন্নয়নমূলক কাজ থেকে বঞ্চিত হচ্ছিল কাশ্মীরের মানুষ। পাকিস্তান যেভাবে কাশ্মীর নিয়ে সরব হয়েছে পাকিস্তানের নাম উল্লেখ না করে তার সমালোচনাও করেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী।

বলেন, ‘নিজেদের দেশ যারা সন্ত্রাসবাদ থেকে রক্ষা করতে পারছেন না, তাদেরই সমস্যা হচ্ছে।’

সন্ত্রাস দমনে ট্রাম্প তার পাশে আছেন উল্লেখ করে মোদি বলেন, ‘সন্ত্রাস দমন করার সময় এসেছে। যেসব দেশ তাদের মদত দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। আর আমি একথা জোর দিয়ে বলতে চাই যে, সেই লড়াইয়ে পাশে আছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।’

আরপি

 

উত্তর আমেরিকা: আরও পড়ুন

আরও