চীনের সঙ্গে বাণিজ্য যুদ্ধ: মার্কিন পুঁজিবাজারে ধস

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

চীনের সঙ্গে বাণিজ্য যুদ্ধ: মার্কিন পুঁজিবাজারে ধস

পরিবর্তন ডেস্ক: ১২:৩৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০১৯

চীনের সঙ্গে বাণিজ্য যুদ্ধ: মার্কিন পুঁজিবাজারে ধস

চীন-যুক্তরাষ্ট্রের চলমান বাণিজ্য যুদ্ধে বড় ক্ষতির মুখে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীরা। শুক্রবার হঠাৎ দর পতনে সর্বোচ্চ ৬২৩ পয়েন্ট হারিয়েছে ডাউ-৩০ ইনডেক্স। যদিও বিপরীত চিত্র দেখা গেছে চীনের পুঁজিবাজারে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাস্প চীন থেকে আমদানি করা ৫৫ হাজার কোটি ডলারের পণ্যে অতিরিক্ত আরও ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের ঘোষণা দিয়েছেন। ওয়াশিংটনের আগের আরোপ করা শুল্কের প্রতিক্রিয়ায় শুক্রবার বেইজিং সাড়ে ৭ হাজার কোটি ডলারের মার্কিন আমদানি পণ্যে শুল্ক বসানোর কয়েক ঘণ্টা পর ট্রাম্প এ ঘোষণা দেন।

একই দিন টুইটারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট তার দেশের কোম্পানিগুলোকে চীন থেকে কার্যক্রম গুটিয়ে নেওয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন।

টুইটারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, “দুঃখজনকভাবে, ন্যায্য ও ভারসাম্যপূর্ণ বাণিজ্যের বিষয়ে আগের প্রশাসনগুলো চীনকে এতখানি ছাড় দিয়েছে যে তারা মার্কিন করদাতাদের জন্য বড় বোঝা হয়ে উঠেছে। প্রেসিডেন্ট হিসেবে, আমি আর এটা হতে দিতে পারি না।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রাথমিকভাবে চীনের যে ২৫ হাজার কোটি ডলারের পণ্যে ২৫ শতাংশ শুল্ক কার্যকর আছে, তা ১ অক্টোবর থেকে বেড়ে ৩০ শতাংশ হবে বলে জানান এ রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট।

বাকি ৩০ হাজার কোটি ডলারের পণ্যে শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বেড়ে হবে ১৫ শতাংশ; এসব পণ্যের অর্ধেকে শুল্ক বসবে ১ সেপ্টেম্বর থেকে, ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকে কার্যকর হবে পরের অর্ধেকে।

ট্রাম্পের ঘোষণার পর মার্কিন বাণিজ্য প্রতিনিধির কার্যালয় থেকেও চীনা আমদানি পণ্যে আরও শুল্ক আরোপের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। এমন পরিস্থিতিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে পুঁজিবাজারে।

বিশ্লেষণে দেখা যায়, বাণিজ্য উত্তেজনা উত্তাপ ছড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পুঁজিবাজারে। শুক্রবার লেনদেন শেষে দেশটির প্রধান ৩০টি কোম্পানি নিয়ে গঠিত সূচক ডাউ জোন্স ইন্ডাস্ট্রিয়াল এভারেজ ইনডেক্স ৬২৩.৩৪ পয়েন্ট কমে ২৫ হাজার ৬২৮ দশমিক ৯০ পয়েন্টে স্থিতি পেয়েছে।

এসময় এস অ্যান্ড পি ৫০০ ইনডেক্স কমেছে ৭৫.৮৪ পয়েন্ট। এর মধ্যে দিয়ে শুক্রবার লেনদেন শেষে সূচকটি ২ হাজার ৮৪৭ পয়েন্টে স্থিতি পেয়েছে। এছাড়া নাসডাক স্টক এক্সচেঞ্জের সূচক ৩ শতাংশ বা ২৩৯ পয়েন্ট কমে ৭ হাজার ৭৫১ পয়েন্টে স্থিতি পেয়েছে।

এসময় যুক্তরাস্ট্রের পুঁজিবাজারে ফুট লকার, অ্যাডলেটেম গ্লোবাল এডুকেশন, পেট্রো-চায়না কোম্পানি লিমিটেড, কেম্পার কর্পোরেশনের মত বহু কোম্পানির দর পতন হয়েছে।

জেডএস/

 

উত্তর আমেরিকা: আরও পড়ুন

আরও