ইরানের মোকাবেলায় সৌদিকে ৮০০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন ট্রাম্পের

ঢাকা, ১৯ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

ইরানের মোকাবেলায় সৌদিকে ৮০০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন ট্রাম্পের

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:৫১ অপরাহ্ণ, মে ২৫, ২০১৯

ইরানের মোকাবেলায় সৌদিকে ৮০০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন ট্রাম্পের

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চিরশত্রু ইরানের মোকাবেলায় সৌদি আরবের কাছে আটশ’ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন দিচ্ছে।

শনিবার ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি’র খবরে বলা হয়, কংগ্রেসের সম্মতি ছাড়াই অস্ত্র বিক্রির এই অনুমোদন দেয়ার জন্য ট্রাম্প ফেডারেল আইনের একটি বিরল বৈশিষ্ট্য প্রয়োগ করেছেন।

তিনি এটা করেছেন, ইরানের সঙ্গে চলমান সংকটকে ‘ন্যাশনাল ইমারজেন্সি’ বা রাষ্ট্রীয় জরুরী অবস্থার সমতুল্য ঘোষণা করার মাধ্যমে।

ট্রাম্পের এই পদক্ষেপে অনেকেই ক্ষুব্ধ হয়েছেন। তাদের আশঙ্কা হচ্ছে, সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ইয়েমেনের বেসামরিক মানুষের ওপর এসব অস্ত্র ব্যবহার করতে।

কয়েক জন ডেমোক্রেট প্রার্থী অভিযোগ করেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে নিখুঁত নিয়ন্ত্রিত বোমাসহ এসব অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন এজন্য দিয়েছেন, তিনি জানতেন কংগ্রেসে এটার অনুমোদন দেয়া হবে না।

বিভিন্ন প্রতিবেদনের উদ্ধৃতি দিয়ে বিবিসি জানায়, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও জর্ডানের কাছেও অস্ত্র বিক্রি করবে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন কংগ্রেসের সদস্যরা সৌদি আরবে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিভিন্ন বিষয়ের কঠোর সমালোচনা করে আসছেন বেশ কিছু দিন ধরে। ইয়েমেন যুদ্ধে সৌদির ভূমিকা এবং সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যাকাণ্ডের ঘটনাতেও দারুণভাবে সমালোচিত হয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের তেল সমৃদ্ধ দেশটি।

অন্যদিকে, যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ওপর আরোপিত অবরোধ থেকে কয়েকটি দেশকে যে সাময়িক অব্যাহতি দিয়েছিল, তা এমাসে শেষ হয়েছে। ২০১৫ সালে ইরান ও বিশ্বের পরাশক্তিগুলোর মধ্যে স্বাক্ষরিত পরমাণু চুক্তি থেকে একতরফাভাবে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নেয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র ওই অবরোধ আরোপ করে।

এমাসেই যুক্তরাষ্ট্র মধ্যপ্রাচ্যে একটি বিমানবাহী যুদ্ধ জাহাজ, বি-৫২ বোমারু বিমান, উভচর সামরিক জাহাজ, এবং ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েন করেছে। ওয়াশিংটন অভিযোগ করছে, ইরানের উচ্চ পর্যায়ের নেতাদের সম্মতিতে মধ্যপ্রাচ্যে সাম্প্রতিক বিভিন্ন ‘সামরিক অভিযানের’ পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করা হয়েছে।

সর্বশেষ, যুক্তরাষ্ট্র মধ্যপ্রাচ্যে আরও ১,৫০০ সৈন্য মোতায়েন করেছে তাদের সামরিক শক্তি বৃদ্ধির অংশ হিসেবে।

এমআর/এএসটি

 

উত্তর আমেরিকা: আরও পড়ুন

আরও