হিজাব পরে কংগ্রেসে ইলহানের ইতিহাস

ঢাকা, ২ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

হিজাব পরে কংগ্রেসে ইলহানের ইতিহাস

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:৪৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ০৪, ২০১৯

হিজাব পরে কংগ্রেসে ইলহানের ইতিহাস

মার্কিন কংগ্রেসের মুসলিম নারী সদস্যদের একজন হিসেবে বৃহস্পতিবার হিজাব পরে নিজের আসনে বসেন ইলহান ওমর।

কংগ্রেসে নির্বাচিত প্রথম দু’জন মুসলিম নারীর একজন হিসেবে আগেই ইতিহাস গড়েছিলেন ডেমোক্রেট পার্টির ইলহান। এবার হিজাব পরে কংগ্রেসে গিয়ে নতুন ইতিহাস গড়লেন তিনি।

শুধু তাই নয়, কংগ্রেসে ইলহান ওমরের কোলে তার ছোট্ট সন্তানও ছিল। সেখানে সবাইকে তাকে ঘিরে বেশ উৎসুক দেখা যায়।

৩৭ বছরের ইলহান ওমর একজন শরণার্থী হিসেবে সোমালি থেকে যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন। তিনি মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের পঞ্চম জেলার জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েছেন।

হাউজ অফ রিপ্রেজেন্টেটিভ পরিচালনায় নতুন কিছু নিয়ম চালু করেন নবনির্বাচিতরা। এর অংশ হিসেবেই ধর্মীয় কারণে মাথা ঢেকে রাখার ওপর নিষেধাজ্ঞা আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেয়া হয়েছে বলে জানায় ব্রিটিশ পত্রিকা ডেইলি মেইল।

এর ফলে ইলহান ওমর হিজাব পরে ভোটদানের জন্য হাউজ ফ্লোরে থাকার সময় এবং সাধারণ সেশনে বক্তৃতা দেয়ার সময় তার হিজাব পরে থাকতে পারবেন।

পরে আনুষ্ঠানিকভাবে কোরআনে হাত রেখে এবং তসবিহ হাতে নিয়ে ইলহান ওমরকে শপথ পড়ান স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি।

তবে বেসবল ক্যাপ কিংবা কাউবয় হ্যাট পরে এখনও কংগ্রেসে প্রবেশ নিষিদ্ধই রয়েছে।

এক টুইটে ইলহান ওমর বলেন, ‘আমার মাথায় আমি ছাড়া আর কেউ স্কার্ফ পরাতে পারবে না। এটা আমার পছন্দ- এটা প্রথম সংশোধনীতে এটার অনুমোদন দেয়া আছে এবং আরও নিষেধাজ্ঞা তুলতে আমার কাজ এখানেই শেষ হবে না।’

১৮৩৭ সাল থেকেই হাউজ অফ রিপ্রেজেন্টেটিভে যেকোনো ধরনের হ্যাট পরা নিষিদ্ধ।

এমআর/আইএম

 

উত্তর আমেরিকা: আরও পড়ুন

আরও