ট্রাম্প আমেরিকাকে ভাগ করছেন: রমনি

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯ | ১১ চৈত্র ১৪২৫

ট্রাম্প আমেরিকাকে ভাগ করছেন: রমনি

পরিবর্তন ডেস্ক ২:০৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ০৩, ২০১৯

ট্রাম্প আমেরিকাকে ভাগ করছেন: রমনি

নিজের দলে আগেও সমালোচিত হয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এবার তাকে আক্রমণ করলেন তারই সাবেক প্রতিদ্বন্দ্বী অর্থাৎ ২০১৬ সালের ভোটের আরেক রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী মিট রমনি।

ট্রাম্পের কর্মদক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন রমনি। তার অভিযোগ, ট্রাম্প দেশকে ভাগ করছেন, সম্পর্ক খারাপ করে ফেলছেন বন্ধু দেশগুলোর সঙ্গে।

মঙ্গলবার একটি প্রথম সারির মার্কিন দৈনিককে রমনি বলেন, ‘ট্রাম্পের শাসনামলে দেশের ভয়াবহ অধঃপতন ঘটেছে।’

মার্কিন ওই গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে কলকাতার আনন্দবাজার বলেছে, প্রতিরক্ষা সচিব পদ থেকে জেমস ম্যাটিসের সরে যাওয়া কিংবা হোয়াইট হাউজের চিফ অব স্টাফ জন কেলির পদত্যাগ নিয়েও ট্রাম্পকেই দায়ী করেছেন রমনি।

তিনি অভিযোগ করেছেন, গুরুত্বপূর্ণ পদে কম অভিজ্ঞতাসম্পন্ন লোককে নিয়োগ করা হচ্ছে। যে সব দেশ আমেরিকার পাশে থেকে লড়েছে, তাদের আলাদা করে দেওয়া হচ্ছে। প্রেসিডেন্টের ভিত্তিহীন দাবি, আমেরিকাকে নাকি বিভিন্ন দেশ ‘শুষে’নিয়েছে। এই সব কথা থেকেই বোঝা যায়, তার (ট্রাম্প) প্রেসিডেন্সির অবস্থা কতটা খারাপ।

সমালোচনার পাশাপাশি ট্রাম্পের কর-নীতি, চীন সম্পর্কে অবস্থান নিয়ে প্রশংসা করেছেন রমনি। তবে এটাও মনে করিয়ে দিয়েছেন, এগুলো ঠিক ট্রাম্পের নীতি নয়, রিপাবলিকান পার্টির সিদ্ধান্ত। রমনির কথায়, ‘একটা দেশের চরিত্র গড়ে তোলে তার প্রেসিডেন্ট। তিনি সবাইকে জুড়ে রাখেন, উদ্বুগ্ধ করেন। আমরা সত্যিই এমন প্রেসিডেন্টই পেয়ে এসেছি।’

নব-নির্বাচিত এ সিনেটরের অভিযোগ, ট্রাম্পের আমলে দেশ বহু-বিভক্ত, মানুষের মনে তিক্ততা ভয়াবহ, তারা ক্ষুব্ধ। শুধু দেশেই নয়, ট্রাম্প যা বলছেন আর যা করছেন, তাতে গোটা বিশ্বে আমেরিকার প্রতি হতাশা তৈরি হচ্ছে। একটি সমীক্ষা রিপোর্টও তুলে ধরেছেন রমনি। তাতে ধরা পড়েছে, ২০১৬ সালে জার্মানি, ব্রিটেন, ফ্রান্স, কানাডা ও সুইডেনের ৮৪ শতাংশ মানুষ মনে করতেন, ট্রাম্প সঠিক কাজই করবেন। মানুষের সেই ভরসা এ বছর কমে দাঁড়িয়েছে ১৬ শতাংশ।

আরপি