এবার ঘরেও চাপের মুখে ট্রাম্প

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

এবার ঘরেও চাপের মুখে ট্রাম্প

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:৪০ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১৫, ২০১৮

এবার ঘরেও চাপের মুখে ট্রাম্প

ঘরে-বাইরে তো ছিলই, এবার সংসারেও চাপের মুখে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প চাইছেন, অবিলম্বে ছেঁটে ফেলা হোক দেশের সহকারী জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টাকে। এ নিয়ে কয়েক দিন ধরেই প্রেসিডেন্টের ওপর চাপ সৃষ্টি করছিলেন তিনি। কিন্তু গতকাল মোক্ষম বিবৃতি এলো ফার্স্ট লেডির অফিস থেকে। যাতে বলা হয়েছে, মিরা রিকার্ডেল আর হোয়াইট হাউজে কাজ করার যোগ্য নন।

কিন্তু ব্যাপার কী! মেলানিয়া হঠাৎ এই নারী উপদেষ্টার ওপর ওপর খেপে উঠলেন কেন? কোনও ব্যাখ্যা দেয়নি তার অফিস। হোয়াইট হাউজের প্রেস সচিব সারা স্যান্ডার্সও মুখে কুলুপ এঁটেছেন।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হোয়াইট হাউজেরই একাংশ বলছে, যত কাণ্ড আফ্রিকাতেই! গত মাসে আফ্রিকা সফরে প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডির সঙ্গে ছিলেন মিরা। তার কাজের ধরন পছন্দ হয়নি বলেই চূড়ান্ত পদক্ষেপ নিতে চাইছেন মেলানিয়া।

শোনা যাচ্ছে, আফ্রিকা সফরে ফার্স্ট লেডির জন্য বরাদ্দ অর্থের পুরোটা তার হাতে তুলে দেননি মিরা!

হোয়াইট হাউজের এক কর্মকর্তার দাবি, সফরসঙ্গী হলেও আফ্রিকায় একবারের জন্যও মেলানিয়ার মুখোমুখি হননি মিরা।

ট্রাম্প প্রশাসনের একাংশ বলছে, ফার্স্ট লেডিরা মাঝেসাঝেই প্রেসিডেন্টের কাজের এখতিয়ারে ঢুকে পড়েন। কিন্তু এমন লিখিতভাবে ক্ষোভ উগরে প্রেসিডেন্টের ওপর সরাসরি চাপ সৃষ্টি এই প্রথম। 

আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের হয়ে প্রচারে ছিলেন মিরা। চলতি বছরের গোড়ায় তাকে সহকারী হিসেবে হোয়াইট হাউজে নিয়ে আসেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বল্টন।

তবে এখনও চাকরি যায়নি মিরার। গতকাল বিকেল পর্যন্ত নিজের অফিসেই ছিলেন তিনি। হোয়াইট হাউজে এক অনুষ্ঠান পালনেও ছিলেন আগাগোড়া হাসিমুখে। সেই অনুষ্ঠান শেষ হতেই বিবৃতি পাঠিয়ে বসে ফার্স্ট লেডির অফিস।

আরপি