‘দীর্ঘদিন থাকলে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে রাখা হবে’

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৫

‘দীর্ঘদিন থাকলে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে রাখা হবে’

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৩:৩৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৭

print
‘দীর্ঘদিন থাকলে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে রাখা হবে’

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেছেন, ‘মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের সহিংসতা থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের অস্থায়ীভাবে থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তবে দীর্ঘদিন হয়ে গেলে নোয়াখালীর ভাসানচরে তাদের থাকার ব্যবস্থা করা হবে।’ সচিবালয়ে সোমবার জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরের হাইকমিশনার ফিলিপো গ্রান্ডির সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন ত্রাণমন্ত্রী।

মায়া বলেন, ‘কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের যেখানে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে সেখানে অভ্যন্তরীণ রাস্তা তৈরির জন্য ইউএনএইচসিআর ৩৫ কোটি টাকা দিতে রাজি হয়েছে। সরকার আশা করছে, আগামীকালের মধ্যে এ টাকা পেয়ে যাবে। রাস্তা তৈরির কাজ সেনাবাহিনী করবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘নির্যাতনের শিকার হয়ে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা সাড়ে চার লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এর সংখ্যা আরো বাড়বে।’

২৫ আগস্ট রাখাইনে সহিংসতা শুরু হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ৪ লাখ ৩০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা মুসলিম বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তাদের সঙ্গে বসবাস করা ৩০ হাজার হিন্দুও বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছেন।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর এ অভিযানে ৫ হাজারের উপরে রোহিঙ্গা নিহতের খবর দিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। যদিও মিয়ানমার সরকারের দাবি, নিহতের এ সংখ্যা ৪০০।

এএম/এনডিএস

 
.



আলোচিত সংবাদ