স্পিকারের সঙ্গে কসোভোর রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

ঢাকা, বুধবার, ২২ জানুয়ারি ২০২০ | ৯ মাঘ ১৪২৬

স্পিকারের সঙ্গে কসোভোর রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৬:০৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯

স্পিকারের সঙ্গে কসোভোর রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপির সাথে কসোভোর রাষ্ট্রদূত গুনের উরেয়া সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন। বৃহস্পতিবার স্পিকারের কার্যালয়ে  সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন তিনি।

সাক্ষাৎকালে তারা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কোন্নয়ন, সংসদীয় কার্যক্রম, সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ, ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ও কসোভোর আর্থ সামাজিক অবস্থা নিয়ে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, কসোভো নতুন স্বাধীন দেশ হিসেবে উদীয়মান। সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করার মাধ্যমে দু’দেশের সম্পর্ক সুদৃঢ় করা সম্ভব বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এ সময় তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা লাভ করে। বাংলাদেশের অর্থনীতি আজ অনন্য উচ্চতায় অবস্থান করছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের সকল ক্ষেত্রে রোল মডেল। বাংলাদেশ ইতোমধ্যে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে প্রবেশ করেছে। বাংলাদেশে এখন বিনিয়োগের ইতিবাচক পরিবেশ রয়েছে।

এসময় তিনি রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে কসোভোর ব্যবসায়ী সমাজকে পাটজাত পণ্যের প্রসার- যা পরিবেশবান্ধব, ঔষধ শিল্প ও ১০০টি বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের আহবান জানান।

ড. শিরীন শারমিন বলেন, বাংলাদেশ পোশাক শিল্প রপ্তানীতে দ্বিতীয় এবং মাছ উৎপাদনে বিশ্বে চতুর্থ। তৈরী পোশাক শিল্প রপ্তানী দেশের অর্থনীতিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে উল্লেখ করে তিনি বলেন বাংলাদেশ এখন সবজি, মাছসহ বিভিন্ন ধরনের পণ্য রপ্তানী করছে। এ সময় স্পীকার কসোভোকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন।

রাষ্ট্রদূত গুনের উরেয়া বলেন, বাংলাদেশের জনগণ খুব আন্তরিক। কসোভোর জনগণের সাথে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় মিল হচ্ছে দু’দেশের জনগণই দৃঢ় পারিবারিক বন্ধনে বিশ্বাসী। বাংলাদেশের সাথে কসোভোর বন্ধন সুদৃঢ় করতে কূটনৈতিক সম্পর্ক বৃদ্ধি করত: সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ প্রতিষ্ঠার উপর গুরুত্বারোপ করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ স্বল্প সময়ে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে-- যা অনুসরণযোগ্য। এ সময় তিনি স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীকে কসোভোর আর্থ সামাজিক অবস্থান তুলে ধরে বাংলাদেশে সহযোগিতা কামনা করেন।

এ সময় বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এইচকে/ 

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও