৮৭০ কোটি টাকা পাচারে দুই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

৮৭০ কোটি টাকা পাচারে দুই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৬:০৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৭, ২০১৯

৮৭০ কোটি টাকা পাচারে দুই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা

৮৭০ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে দুইটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ১৫টি মামলা করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর পল্টন থানায় মামলাগুলো করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর।

শুল্ক গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, মেসার্স হানান আনহুই এগ্রো লিমিটেড ৬টি বিল অব এন্ট্রির বিপরীতে ৪৩৯ কোটি ১০ লাখ টাকা পাচার করেছেন। বিপুল অংকের এ অর্থ পাচারের অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ৬টি আলাদা মামলা করা হয়েছে।

অপর প্রতিষ্ঠান মেসার্স এগ্রো বিডি অ্যান্ড জেপি ৯টি বিল অব এন্ট্রির বিপরীতে ৪৩১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা পাচার করেছেন। বিপুল অঙ্কের এ অর্থ পাচারের অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ৯টি আলাদা মামলা করা হয়েছে।

জানা গেছে, হেনান আনহুই এগ্রো লিমিটেড ৩২টি ও এগ্রো বিডি অ্যান্ড জেপি লিমিটেড ৪৬টি কন্টেইনারসহ মোট ৭৮টি কন্টেইনারে মেশিনারিজ আমদানির ঘোষণা দেয়। এজন্য প্রতিষ্ঠান দুটি ১৫টি এলসি খুলে।

শুল্ক গোয়েন্দার অনুসন্ধানে জানা গেছে, প্রতিষ্ঠান দুটি ক্যাপিটাল মেশিনারিজ আমদানির ঘোষণা দিলেও তা পাওয়া যায়নি। কন্টেনার খুলে দেখা গেছে, তারা আমদানি নিয়ন্ত্রিত ও আমদানি নিষিদ্ধ সিগারেট, এলইডি টেলিভিশন, ফটোকপিয়ার মেশিন ও মদ আমদানি করে।

অর্থপাচার করতে প্রতিষ্ঠান দুটি জালিয়াতির আশ্রয় নিয়েছে বলে জানতে পারে শুল্ক গোয়েন্দা। কারণ যে প্রতিষ্ঠানগুলো জাল জালিয়াতির আশ্রয় নিয়েছে এগুলো পুরোপুরি অস্তিত্বহীন। উল্লেখিত দুটি নামে কোনো প্রতিষ্ঠান খুঁজে পায়নি শুল্ক গোয়েন্দা।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডক্টর শহীদুল ইসলাম পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, শিগগিরই জাল জালিয়াতির পেছনে কারা জড়িত ও কারা অর্থপাচার করেছেন, তাদেরকে খুঁজে বের করা হবে। তাদেরকে আইনের আওতায় এনে যথাযথ শাস্তি দেয়া হবে।

এফএ/এইচআর

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও