সিলেটে শেভরনের কাজ দেখলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

সিলেটে শেভরনের কাজ দেখলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত

সিলেট ব্যুরো ১:৪৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

সিলেটে শেভরনের কাজ দেখলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত

বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার বলেছেন,

মানবপাচার মোকাবেলায় বাংলাদেশের সাথে কাজ করা এবং পাচার থেকে বেঁচে যাওয়া মানুষের বিভিন্ন সুযোগ বাড়ানো যুক্তরাজ্য সরকারের অঙ্গীকার।

বুধবার দুপুরে সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, পাচারকারীরা যে মুনাফার লোভে অসহায় লোকদের শোষণ করা চালিয়ে যাচ্ছে তার সুযোগ বানচাল করে দিতে করণীয় বিষয়গুলো নিয়েও আমরা আলোচনা করেছি।

সিলেট সফরকালে দেশের একমাত্র জলারবন রাতারগুল পরিদর্শনের অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, রাতারগুলের মতো বাস্তুসংস্থানগুলো সংরক্ষণ করা খুবই জরুরি। রাতারগুলের মতো বিভিন্ন সংরক্ষিত প্রজাতির আবাসস্থল এবং মানুষকে বন্যার হাত থেকে রক্ষা করার মতো পরিবেশগত সেবা দেয়।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেন, সিলেটে অবস্থানকালে আমার ‘রাতারগুল বিশেষ জীববৈচিত্র’ সংরক্ষণ এলাকা’ ঘুরে দেখারও সুযোগ হয়েছিল। আমি নৌকায় চড়ে এলাকাটি বেড়িয়েছি এবং জলাভূমির বনটির দারুণ উদ্ভিদ এবং প্রাণী বৈচিত্র্য দেখেছি।

তিনি বলেন, সিলেটে দেখার ও করার মতো অনেক কিছুই আছে। তবে আমার এবারের আসার অন্যতম কারণ ছিল শেভরন কর্পোরেশনের বিবিয়ানা গ্যাস প্ল্যান্ট পরিদর্শন করা।

রাষ্ট্রদূত বলেন, শেভরনের মতো আমেরিকান কোম্পানিগুলো কেবল যে বাংলাদেশের জ্বালানি খাতেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে তা নয়, এ দেশের ক্রমবর্ধমান অর্থনীতিতে একটি বড় নিয়োগকারী হিসাবেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। আমরা চাই যুক্তরাষ্ট্রের শেভরন এবং অন্য কোম্পানিগুলো বাংলাদেশে বিনিয়োগ অব্যাহত রাখুক এবং এ দেশের অর্থনীতিতে নতুন নতুন উদ্ভাবনী প্রযুক্তি চালু করুক। এতে ক্রমেই আরও বেশিসংখ্যক লোকের সঙ্গে সমৃদ্ধি ভাগ করে নেওয়া যাবে এবং আমাদের উভয় দেশই উপকৃত হবে।’

ডিএস/এএসটি

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও