বিদেশি সিরিয়াল চালাতে সেন্সর বোর্ডের অনুমোদন লাগবে: তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, শনিবার, ৯ নভেম্বর ২০১৯ | ২৪ কার্তিক ১৪২৬

বিদেশি সিরিয়াল চালাতে সেন্সর বোর্ডের অনুমোদন লাগবে: তথ্যমন্ত্রী

সচিবালয় প্রতিবেদক ১:৪১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৭, ২০১৯

বিদেশি সিরিয়াল চালাতে সেন্সর বোর্ডের অনুমোদন লাগবে: তথ্যমন্ত্রী

ভবিষ্যতে বিদেশি সিরিয়াল চালাতে সেন্সর বোর্ডের অনুমোদন লাগবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বৃহস্পতিবার তথ্য মন্ত্রণালয়েরর সভাকক্ষে দেশে টেলিভিশনের ক্যাবল নেটওয়ার্ককে ডিজিটাল পদ্ধতির আওতায় আনার লক্ষ্যে মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, দেশের কিছু চ্যানেলে বিদেশি সিরিয়াল ডাবিং করে প্রচার হচ্ছে। একটি চলচ্চিত্র বানানোর পর যেহেতু সেন্সর বোর্ড হয়ে সম্প্রচারে আসতে হয়, সেখানে বিদেশি সিরিয়াল সেন্সর ছাড়া প্রচার হওয়া সমীচীন নয়। যারা প্রদর্শন করছেন তারা অনুমোদনের আবেদন করেছেন। যেহেতু এসব সিরিয়ালের কিছু দর্শক রয়েছে তাই সেগুলো চালানোর অনুমোদন দিচ্ছি। তবে ভবিষ্যতে যেন এসব সিরিয়াল সেন্সর বোর্ড হয়ে আসে সে জন্য কমিটি হচ্ছে।

বিদেশি ডিটিএইচের বিরুদ্ধে ১৫ ডিসেম্বরের পর অভিযান হবে জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের দেশের দুইটি কোম্পানীকে ডিটিএইচ'র (ডিরেক্ট টু হোম) লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। তবে বিদেশি ডিটিএইচ প্রযুক্তি ব্যবহারের কোন অনুমোদন সরকার দেয়নি। কিন্তু অনেক জায়গায়ই দেখা যাচ্ছে বিদেশি ডিটিএইচ ব্যবহার করা হচ্ছে। যেগুলো সম্পূর্ণ অবৈধ। আগামি ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে এসব অবৈধ সংযোগ সরিয়ে নিতে হবে। এরপর আমরা ব্যবস্থা নেবো। অভিযানে যাদের কাছে ডিটিএইচ পাওয়া যাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শাস্তির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কোন ব্যক্তি অপরাধ সংগঠন করলে অনধিক ২ বছর কারাদণ্ড, অনধিক এক লক্ষ টাকা অনুনন্য ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড। আর দ্বিতীয়বার এই অপরাধ করলে তিন বছর সশ্রম কারাণ্ড, অনূন্য ১ লাখ টাকা জরিমানার বিধান আছে।

আবরার হত্যা নিয়ে ঐক্যফ্রন্টের সভা প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে প্রচন্ড অনৈক্য। তারা আবরার হত্যা নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার চেষ্টা করছেন। অবারার হত্যার পর সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যে ব্যবস্থা নিয়েছে এগুলোতে সন্তুষ্ট হয়ে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন স্থগিত করেছে। ঐক্যফ্রন্ট এটা নিয়ে পানি ঘোলা করার চেষ্টা করছে, এটি আবরার হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদের জন্য নয়, বরং নিজেরা রাজনীতি করার স্বার্থে এই চেষ্টা করছে। মূলত ঐক্য ফ্রন্টের ঐক্য ধরে রাখতেই তারা এ সভা আহ্বান করেছে।

বাংলা চ্যানেলগুলোর প্রথম দিকেরর সিরিয়ালে আসছে জানিয়ে তিনি বলেন, আগে চ্যানেলগুলোর সিরিয়াল মানা হচ্ছিল না। পরে আমরা কেবল অপারেটরদের নির্দেশনা দিয়েছি বাংলা চ্যানেলগুলো শুরুর দিকে রাখার জন্য। এজন্য মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। এখন ৯৮ ভাগ ক্ষেত্রে সিরিয়াল মানা হচ্ছে। কোথাও না মানলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এসএস/এইচকে

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও