‘দুষ্ট গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভালো’

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

‘দুষ্ট গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভালো’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৩:২৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯

‘দুষ্ট গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভালো’

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমাদের নেত্রী যে নির্দেশনা দিয়েছেন সেই নির্দেশনাকে অনুসরণ করে আমরা সব পর্যায়ে দলের ভাবমূর্তিকে উজ্জল করতে চাই। এক্ষেত্রে সরকারের ভাবমূর্তি স্বচ্ছ করার জন্য আমাদের স্বচ্ছ থাকতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের দলের মধ্যে যারা অপকর্ম করে, অনিয়ম করে এবং যাদের মানসিকতা দুর্নীতিপ্রবণ এ ধরনের নেতা-কর্মীদের দলের ভেতরে না থাকাই যথার্থ বলে আমরা মনে করি। এক্ষেত্রে আমি বলবো দুষ্ট গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভালো।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে সমসাময়িক বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে যুবলীগ প্রসঙ্গে করা এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, একটা সমস্যা থেকে যায়, সেটা হলো কিছু আগাছা-পরগাছা সুবিধাবাদী একটি স্রোতের সঙ্গে ক্ষমতাসীন দলে ঢুকে পড়ে এবং এরাই বেশিরভাগ সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায় । কাজেই প্রধানমন্ত্রীর যে ক্লিন ইমেজ আছে সেটা দলের ভেতরেও যাতে স্বচ্ছ থাকে সেটা করার প্রয়োজন আছে। যেমন ছাত্রলীগ বিষয়ে একটা সিদ্ধান্ত হয়েছে। যুবলীগেও তারা নিজেরা একটা উদ্যোগ নিয়েছে। তারা ট্রাইব্যুনাল গঠন করছে। দেখা যাক তারা কি করতে পারেন। 

কাদের বলেন, এখানে পরিস্কার বিষয় হচ্ছে সরকার এবং দলের ইমেজটা ক্লিন হওয়া দরকার। প্রধানমন্ত্রী ক্লিন ইমেজের জন্য সারা বিশ্বে প্রশংসিত ও সমাদৃত। বাংলাদেশের মানুষও তার সততার প্রশংসা করে। আমরা সবাই যদি নিজেদের ইমেজকে স্বচ্ছ করতে না পারি তাহলে কিছু কিছু বিষয় এসে যায় যেগুলো জনগণের কাছে দলের ও সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করে।

তিনি আরও বলেন, এটাই আমরা আসলে চিন্তাভাবনা করছি। দশটা ভাল কাজকে একটা খারাপ আচরণ ম্লান করে দেয়। সেজন্য কিছু কিছু ঘটনার প্রেক্ষিতে যুবলীগের বিষয়ে অভিযোগ এসেছে সেই অভিযোগের কারণে কিছু কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আমাদের দলের অন্তকলহের কারণে উপজেলা পর্যায়েও শোকোজ নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, যেই অপকর্ম করুক তাকেই শাস্তি পেতে হবে এবং তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে, সঙ্গে সঙ্গে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গোয়েন্দা সংস্থাগুলোকেও বলা হয়েছে, তাদেরকে রিপোর্ট নেওয়ার জন্য। কোথাও অপকর্ম হলে যথাযথ ইনফরমেশন দেওয়ার জন্য। সে বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে কাউকেই যেন ছাড় দেওয়া না হয়। তিনি দলের যেই হোক বা যত শক্তিশালীই হোক।

এসএস-এসইউজে

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও