টাকার জন্যই সাবেক স্ত্রী হাসিকে খুন করে সোহেল

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

টাকার জন্যই সাবেক স্ত্রী হাসিকে খুন করে সোহেল

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৪:৫৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯

টাকার জন্যই সাবেক স্ত্রী হাসিকে খুন করে সোহেল

সাভারের আমিনবাজারের আলোচিত হাসি আক্তার হত্যা মামলার পলাতক প্রধান আসামি সোহেল রানাকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

গ্রেফতারের পর র‌্যাবের কাছে সাবেক স্ত্রী হাসি আক্তারকে হত্যার রোমহর্ষক বর্ণনা দিতে গিয়ে সোহেল রানা জানায়, টাকার লোভেই প্রাক্তন স্ত্রীকে খুন করেছে সে।

কুমিল্লা শহরের ধর্মসাগর এলাকায় রোববার দিনগত রাতে অভিযান চালিয়ে সোহেল রানাকে গ্রেফতার করা হয়।

সোমবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক।

তিনি বলেন, নিজেদের মধ্যে ভালো লাগা থেকে পরিবারের মাধ্যমে বিয়ে হয় হাসি আর সোহেলের। কিন্তু বিয়ের কয়েক মাসের মধ্যেই সোহেলের অত্যাচার-নির্যাতনে তাদের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়। আলাদাভাবে বাঁচার চেষ্টা করেন হাসি। সোহেলকে ডিভোর্স দিয়ে একটু সুখ খুঁজছিলেন তিনি। চাকরিও নিয়েছিলেন। কিন্তু হাসির সেই সুখ সহ্য হয়নি সোহেলের।

মোজাম্মেল হক বলেন, গত ১ মে সকাল সাড়ে ৮টায় হাসির ভাড়া বাসায় জোরপূর্বক ঢোকে সোহেল। এসময় সে হাসির কাছে টাকা দাবি করে। টাকা দিতে অস্বীকার করলে বেধড়ক মারধর করে হাসিকে। চোখে এবং মাথায় মারাত্বক আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে অজ্ঞান হয়ে ফ্লোরে পড়ে যান হাসি। সোহেলের পা ধরে জীবন ভিক্ষা চান। বাঁচার আকুতি জানান। কিন্তু মন গলে না সোহেলের।

হাসির চুল ধরে ফ্লোরের টাইলসের সঙ্গে উপর্যুপরি মাথায় আঘাত করতে থাকে। একপর্যায়ে খাটের নিচে থাকা ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে দেয়। পরে হাসিকে মৃত ভেবে তার আলমারির ড্রয়ার থেকে তিন ভরি স্বর্ণ ও নগদ ৩০ হাজার টাকাসহ মোট দেড় লাখ টাকার মালামাল নিয়ে দরজা বন্ধ করে পালিয়ে যায় সোহেল।

পরে বাড়ির মালিক এসে গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় হাসিকে উদ্ধার করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতলে ভর্তি করে। সেখানে নিউরোলজি সায়েন্সের আইসিওতে লাইফ সাপোর্টে ছয়দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে ৭ মে মারা যান হাসি। এ ঘটনায় হাসির মা বাদী হয়ে সাভার থানায় একটি মামলা করেন।

অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল আরো জানান, থানায় মামলা হওয়ার পরে সোহেল ও তার পরিবার মামলা তুলে নেয়ার জন্য হাসির মাকে ভয়ভীতি ও হত্যার হুমকি দিতে থাকে। মামলাটির গুরুত্ব বিবেচনা করে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব-৪ ছায়াতদন্ত শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে রোববার কুমিল্লা শহরের ধর্মসাগর পার্কের সামনে থেকে সোহেলকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

পিএসএস/এইচআর

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও