নির্বাচন ভবনে আগুন, তদন্ত কমিটির ৫ সুপারিশ

ঢাকা, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

নির্বাচন ভবনে আগুন, তদন্ত কমিটির ৫ সুপারিশ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৭:০৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

নির্বাচন ভবনে আগুন, তদন্ত কমিটির ৫ সুপারিশ

ভবিষ্যতে যাতে নির্বাচন ভবনে আর অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা না ঘটে সে জন্য পাঁচটি সুপারিশ করেছে তদন্ত কমিটি। বৃহস্পতিবার বিকেলে তদন্ত কমিটির সভাপতি ও নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেসুর রহমান।

তিনি বলেন, ভবিষ্যতে যাতে এমন ঘটনা না ঘটে সেজন্য সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে পাঁচটি সুপারিশ রেখেছি। কমিশন ভবনে ইভিএম কাস্টমাইজ  কক্ষের মতো অন্যান্য হাইটেক কক্ষগুলোতে সার্বক্ষণিক সয়ংক্রিয় অগ্নি নির্বাপক ব্যবস্থা রাখতে হবে এবং অতিরিক্ত পোর্টেবল ফায়ার ইস্টিংগুইসার স্থাপন করতে হবে। কাস্টমাইজসহ অন্যান্য হাইটেক কক্ষসমূহ সম্পূর্ণ রুপে সার্বক্ষণিক সিসিটিভির আওতায় আনতে হবে। বিদ্যমান ফোর্স ভেন্টিশন ব্যবস্থার কার্যকারিতা এবং ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের চাহিদার প্রেক্ষিতে নির্বাচন ভবনের  যেকোন পূর্ত এবং ইএম (বিদ্যুৎ) কাজ গণপূর্ত অধিদপ্তরের সাথে অধিকতর সমন্বয়ের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করতে হবে।

ইভিএম কাস্টমাইজেশন কক্ষটির অভ্যন্তরিন বৈদ্যুতিক কাজের ক্ষেত্রে উন্নত তার ব্যবহার করতে হবে। উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন মাল্টিপ্লাগ, তার, সুইচ, সকেট ব্যবহার করতে হবে। নতুন বৈদ্যুতিক সংযোগ ও প্রাত্যহিক ব্যবহার ক্যালকুলেশন করে ঠিক করতে হবে।

প্রতি ছয় মাস পর পর বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন (বিইসি), গণপূর্ত অধিদপ্তর, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের প্রতিনিধির সমন্বয় গঠিত কমিটি দ্বারা বৈদ্যুতিক লাইন ও ফায়ার সিস্টেম পরিক্ষা করে দেখতে হবে।  এবং

নির্বাচন ভবনে অত্যাধুনিক ইন্টেগ্রেটেড বিল্ডিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের ব্যবস্থা করতে হবে ও সার্বক্ষনিক মনিটরিং ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।

গত রোববার রাত ১১টায় নির্বাচন ভবনের বেইজমেন্টে আগুন লাগে, দেড় ঘণ্টার মতো কাজ করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

সোমবার সকালে ইসির অতিরিক্ত সচিবকে প্রধান করে করা ছয় সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়। বাকি সদস্যরা হলেন- জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, গণপূর্তের ই/এম বিভাগ-৮ এর নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল হালিম, গণপূর্ত বিভাগ-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী শাহ ইয়ামিন-উল-ইসলাম ও ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের প্রতিনিধি। কমিটির সদস্য সচিবের দায়িত্বে রয়েছেন ইসির সহকারী সচিব (সেবা-২) খ ম আরিফুল ইসলাম।

কমিটিকে তিনটি কার্যপরিধী নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। সেগুলো হলো- অগ্নিকাণ্ড সংঘটিত হওয়ার কারণ ও উৎস নির্ণয়; অগ্নিকাণ্ডের ফলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ (আর্থিক মূল্যসহ) এবং ভবিষ্যতে এই ধরনের অগ্নিকাণ্ড যাতে না ঘটে সে সংক্রান্ত সুপারিশ প্রণয়ন।

কটিমি গঠন করার পর মঙ্গলবার ও বুধবার বৈঠকে বসে কমিটির সদস্যরা। পরে বৃহস্পতিবার ইসির কাছে তাদের প্রতিবেদন জমা দেয় কমিটি।

এইচকে/

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও