ভালো নাই, আমি ভালো নাই: প্রিয়া সাহা

ঢাকা, ২৫ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

ভালো নাই, আমি ভালো নাই: প্রিয়া সাহা

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:৫৩ অপরাহ্ণ, জুলাই ২১, ২০১৯

ভালো নাই, আমি ভালো নাই: প্রিয়া সাহা

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বলা কথা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে প্রথম মুখ খুললেন প্রিয়া সাহা। জানিয়েছেন, ওই ঘটনার পর থেকে তিনি ভালো নেই।

রোববার প্রিয়া সাহার এনজিও ‘সারি বাংলাদেশ’র ইউটিউব চ্যানেলে দেয়া প্রায় ৩৫ মিনিটের ভিডিওতে তিনি ঘটনার বিষয়ে নানা কথা বলেছেন।

সেখানে দু’জনের কথোপকথনে প্রিয়া সাহা অনেক প্রশ্নের জবাব দেন। এমনই এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি ভালো নাই। আমি ভালো নাই। আপনারা দেশে আছেন, প্রতিটা বিষয় পর্যবেক্ষণ (অবজার্ভ) করছেন। সামাজিক মাধ্যম, মিডিয়া থেকে ব্যক্তি, কিভাবে পরিস্থিতি যাচ্ছে, আশা করি আপনারা ভালো বুঝতে পারছেন।’

আরেক প্রশ্নের উত্তরে প্রিয়া সাহা বলেন, ‘ওই ঘটনার পর আমার পরিবার ভীষণ সমস্যার মধ্যদিয়ে যাচ্ছে। বাসার সামনে মিছিলের চেষ্টা হয়েছে। সবচেয়ে বড় বিষয়, আমার পরিবারের ছবি পত্রিকায় ছেপে দেয়া হয়েছে। কথা বলেছি আমি, তারা আমার ছবি দিতে পারতো। কিন্তু, পরিবারের ছবি ছেপে তাদের সবার জীবন বিপন্ন করে ফেলেছে। অথচ পরিবারের সদস্যরা আমার কাজের সঙ্গে কোনোভাবেই যুক্ত নন।’

অবশ্য বাসার সামনে কারা মিছিল করেছে তা তিনি স্পষ্ট করেননি, ‘কারা মিছিল করেছে, আমি জানি না। পত্রপত্রিকা দেখলেই জানতে পারবেন। প্রচুর লোকজন গতকাল (শনিবার) বাসার সামনে জড়ো হয়েছিল। দারোয়ান তালা দিয়েছিল, সেটি ভাঙার চেষ্টা হয়েছে। বাসা সিলগালা করে দেয়ার হুমকি দিয়ে গেছে। অনেকভাবে কথাবার্তা বলেছে। চাইলেই খোঁজ করে দেখতে পারেন।’

গত ১৭ জুলাই ওভাল হাউসে এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে জানান, বাংলাদেশের মৌলবাদী মুসলিমরা তার জমি কেড়ে নিয়েছে, বাড়িঘরে আগুন দিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু, বৌদ্ধ খ্রিস্টান সম্পদায়ের মানুষ গুম রয়েছেন। আরও ১ কোটি ৮০ লাখ সংখ্যালঘু রয়েছেন, যারা দেশটিতে থাকতে চান।’

এ সময় প্রিয়া সাহা এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে সাহায্যও চান।

প্রিয়া সাহার বাড়ি পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার মাটিভাঙ্গা ইউনিয়নের চরবানিরী গ্রামে। তার স্বামী মলয় সাহা দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক।

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহা জাতীয় মহিলা ঐক্য পরিষদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ‘সারি বাংলাদেশ’ নামের এনজিও চালান তিনি।

প্রিয়া সাহাকে ঐক্য পরিষদের প্রতিনিধি হিসেবে পাঠানোর কথা সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশ গুপ্ত অস্বীকার করেছেন। তবে আয়োজক সংগঠন ফ্রিডম হাউজের ওয়েবসাইটে প্রিয়া সাহার পরিচয় রয়েছে। সেখানে ধর্মীয় কারণে নিপীড়নের শিকার ২৭ জনের মধ্যে যে ২৪ ব্যক্তির তালিকা, তাতে প্রিয়া সাহা ১৮ নম্বরে। তার নামের সঙ্গে পরিচয় হিসেবে লেখা, ‘বাংলাদেশ থেকে আসা একজন হিন্দু, যিনি বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক।’

আইএম

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও