শিশুশ্রম নিরসনে ডিসিদের সহযোগিতা চাইলেন প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

শিশুশ্রম নিরসনে ডিসিদের সহযোগিতা চাইলেন প্রতিমন্ত্রী

সচিবালয় প্রতিবেদক ৭:৩৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০১৯

শিশুশ্রম নিরসনে ডিসিদের সহযোগিতা চাইলেন প্রতিমন্ত্রী

নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতকরণে এবং ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসনে জেলা প্রশাসকদের সহযোগিতা চাইলেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান।

মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদ সভাকক্ষে জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সহযোগিতা চান।

এসময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের দেশে নিরাপদ কর্মক্ষেত্র, ২০৩০ সালের মধ্যে শিশুশ্রমমুক্ত, ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ গড়তে জেলা প্রশাসকদের বড় ভূমিকা পালন করতে হবে।

বিশেষ করে নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতকরণ এবং ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসনে জেলা প্রশাসকসহ প্রশাসনের সব স্তরের কর্মকর্তাদের পাশে পাবেন বলে আশা করেন প্রতিমন্ত্রী।

মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসন প্রকল্পের ৪র্থ পর্যায়ে ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োজিত ১ লাখ শিশুকে শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ঝুঁকিমুক্ত জীবনে ফিরিয়ে আনা হবে। এসডিজিকে সামনে রেখে ২০৩০ সালের মধ্যে সব ধরনের শিশুশ্রমমুক্ত দেশ গড়তে সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সরকার ৩৮টি কাজকে শিশুদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে নিষিদ্ধ করেছে। ইতোমধ্যে তৈরি পোশাক এবং চিংড়ি প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পকে শিশুশ্রমমুক্ত করা হয়েছে।

তার মন্ত্রণালয় আরো ১১টি ঝুঁকিপূর্ণ কাজকে শিশুশ্রম মুক্ত করার লক্ষ্যে কাজ করছে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

প্রতিমন্ত্রী শ্রমজীবী মেহনতি মানুষের অধিকার সুরক্ষা, তাদের কল্যাণসাধন এবং শ্রমজীবী মানুষগুলোর মুখে হাসি ফোটানোর জন্য বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে বলে উল্লেখ করেন।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের সভাপতিত্বে সম্মেলনের এ সেশনে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমেদ, বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গহর রিজভী।

সভায় এছাড়া পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব এম শহীদুল ইসলাম, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব রৌনক জাহান, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. মোল্লা জালাল উদ্দিনসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিভাগীয় কমিশনাররা উপস্থিত ছিলেন।

এসএস/এইচআর

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও