পোশাক খাতকে পরাজিত বনের বিড়াল বানাবেন না: রুবানা হক

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

পোশাক খাতকে পরাজিত বনের বিড়াল বানাবেন না: রুবানা হক

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৭:২৪ অপরাহ্ণ, জুন ১৬, ২০১৯

পোশাক খাতকে পরাজিত বনের বিড়াল বানাবেন না: রুবানা হক

২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে বিজিএমইএ সভাপতি রুবানা হক বলেছেন, পোশাক খাতকে বাঁচিয়ে রাখতে প্রণোদনা বাড়ানো দরকার। গত কয়েক বছরে আমরা সর্বোচ্চ আটশ কোটি টাকার প্রণোদনা তুলতে পেরেছি।

তিনি বলেন, নানারকম আমলাতান্ত্রিক ঝামেলার কারণে অনেকেই ইনসেন্টিভ পান না। অনেকে নিতেও চান না। নতুন বাজারের ক্ষেত্রে প্রণোদনা বাড়ানো উচিৎ। দয়া করে দেশের পোশাক খাতকে পরাজিত বনের বিড়াল বানাবেন না।

রোববার বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনে বাজেটে দেওয়া তৈরি পোশাক শিল্পের প্রণোদনা ইস্যুতে রুবানা হক বলেন, ‘কৃষকের সঙ্গে মালিকের তুলনা করা চলে না। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে গেলে আমাদের মনে হয় শিশু। আমরা দুর্বল শিশুর অবস্থানে চলে এসেছি।

তিনি বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় প্রণোদনা অন্তত ৩ শতাংশে উন্নীত করার দাবি করছি।’ এসময় পোশাক কারখানায় গ্যাস-বিদ্যুতে ভ্যাট অব্যাহতির বিষয়টিকেও স্বাগত জানান রুবানা হক।

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, এবারের বাজেটে আমরা ৭০ ভাগ খুশি। কিন্তু আমরা অন্তত ৩ শতাংশ প্রণোদনা পেতে চাই। বাজেটের প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় এটি জনকল্যাণমুখী বাজেট বলেছিলাম। আমি এখনও আগের অবস্থানেই আছি। এটি ব্যবসাবান্ধব ও জনকল্যাণমূলক বাজেট।

তিনি বলেন, প্রতিনিয়ত যদি আমাদের শুনতে হয়, আমরা ম্যাচিউরড, এস্টাব্লিশড, আমাদের আর সাহায্য দরকার নেই, তা ঠিক নয়। প্রতিথযশা অর্থনীতিবিদরাও তাও বলেন।

রুবানা বলেন, পোশাকে কিন্তু ডাবল ডিজিট প্রবৃদ্ধি নেই। গড়ে ৫ শতাংশের মতো প্রবৃদ্ধি রয়েছে। গত এক মাসে আমরা ৩০টি ফ্যাক্টরি বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছি। ঈদের আগে অনেকে মেশিন বিক্রি করে হলেও বেতন দিয়েছে। সুতরাং এ খাতে প্রণোদনা বাড়ানো দরকার।

এফএ/এএসটি

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও