ক্রাইস্টচার্চে স্বামীকে খুঁজতে গিয়ে নিহত হন সিলেটের হোসনে আরা

ঢাকা, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯ | ৮ চৈত্র ১৪২৫

ক্রাইস্টচার্চে স্বামীকে খুঁজতে গিয়ে নিহত হন সিলেটের হোসনে আরা

দিপু সিদ্দিকী, সিলেট ৬:১৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৫, ২০১৯

ক্রাইস্টচার্চে স্বামীকে খুঁজতে গিয়ে নিহত হন সিলেটের হোসনে আরা

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে জুমার নামাজের সময় বন্দুকধারীদের গুলিতে ৪৯ জন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে সিলেটের গোলাপগঞ্জের হোসনে আরা বেগম (৪৫) রয়েছেন। অসুস্থ স্বামী মসজিদের ভেতরে রয়েছেন ভেবে তাকে খুঁজতে গিয়েই বন্দুকধারীর গুলিতে প্রাণ হারান এক কন্যাসন্তানের এ জননী।

তিনি উপজেলার লক্ষ্মীপাশা ইউপির জাঙ্গালহাটা গ্রামের মৃত নুর উদ্দিনের মেয়ে। তার স্বামী ফরিদ আহমদেও সাথে দীর্ঘদিন ধরে নিউজিল্যান্ডে বসবাস করে আসছেন।

নিহত হোসনে আরা বেগমের বোনের ছেলে সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ভাদেশ্বরের দেলওয়ার হোসাইন পরিবর্তন ডটকমকে জানিয়েছেন, হোসনে আরা বেগমের সাথে সিলেটের বিশ্বনাথের মিরেরচর গ্রামের মৃত মকররম আলীর ছেলে ফরিদ আহমদের সাথে বিয়ে হয়।

তিনি ১৯৯৪ সালে স্বামীর সাথে নিউজিল্যান্ডে পাড়ি জমান। তাদের শিপা আহমেদ (১৭) নামের একজন কন্যাসন্তান রয়েছে। দেলওয়ার হোসাইন আরো বলেন, নিহত হোসনে আরা ২ ভাই ও ৩ বোনের মধ্যে সবার ছোট। ১৯৯১ সালে গোলাপগঞ্জের কোনাচর শাহজালাল আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করেন।

তিনি আরো বলেন, হোসনে আরা বেগম নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টার টাউনে স্বামী সন্তানকে নিয়ে বসবাস করতেন। শুক্রবার আল নূর মসজিদে স্বামীকে নিয়ে নামাজ আদায় করতে যান। এ সময় তিনি মসজিদ থেকে বেরিয়ে এলেও স্বামী ফরিদ আহমদ ভেতরে রয়েছেন মনে করে আবার মসজিদের ভেতরে গেলে সন্ত্রাসীর গুলিতে নিহত হন তিনি। তবে আগেই ফরিদ আহমদ নিরাপদে মসজিদ থেকে বেরিয়ে এসেছিলেন, যা জানতেন না হোসনে আরা। বর্তমানে হোসনে আরা বেগমের লাশ সেখানকার একটি সরকারি হাসপাতালে রাখা হয়েছে। আত্মীয় স্বজনদেরও দেখতে দেওয়া হয়নি বলে দেলওয়ার হোসাইন।

এমএ