‘সব দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখে এগিয়ে যেতে চায় বাংলাদেশ’

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৬ আশ্বিন ১৪২৫

‘সব দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখে এগিয়ে যেতে চায় বাংলাদেশ’

সচিবালয় প্রতিবেদক ২:৫৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮

‘সব দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখে এগিয়ে যেতে চায় বাংলাদেশ’

বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়ে প্রতিবেশীসহ সকল দেশের সাথে সুসম্পর্ক রেখে এগিয়ে যেতে চায়। সাপটা, আপটা, বিবিআইএন, বিসিআইএমের মতো জোটে থেকে এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ তিনটি শর্ত পূরণ করে এডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে যাবার প্রথম ধাপ সফলভাবে অতিক্রম করেছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বৃহস্পতিবার ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে ন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে ওয়াল্ড ইকোনমিক ফোরামের মেম্বার অফ ম্যানেজিং বোর্ডের প্রেসিডেন্ট বরগে ব্রেনডির সঞ্চালনায় জিওস্টাটেজিক ডিসকার্শনে বক্তৃতা প্রদানের সময় এসব কথা বলেন।
বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এলডিসি থেকে পাঁচটি দেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হচ্ছে, এর মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশ একত্রে তিনটি শর্ত পূরণ করেছে। ২০২৪ সালে বাংলাদেশ পরিপূর্ণভাবে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে। তখন বাংলাদেশের জিএসপি সুবিধা থাকবে না। তবে বাংলাদেশ ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে জিএসপি প্লাস সুবিধা পাবে। অন্যান্য দেশের সাথে এফটিএ স্বাক্ষর করে বিশ্ব বাণিজ্যে এগিয়ে যাবে। বাংলাদেশ সকল দেশের আন্তরিক সহযোগিতা চায়।
ওয়াল্ড ইকোনমিক ফোরামের প্রেসিডেন্ট বাণিজ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে বাংলাদেশে আশ্রয়গ্রহণকারী রোহিঙ্গাদের বিষয়ে জানতে চাইলে তোফায়েল আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একান্তই মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশের মাটিতে আশ্রয় প্রদান করেছেন। তিনি এজন্য বিশ্ববাসীর কাছ থেকে মাদার অফ হিউমানিটি খেতাব অর্জন করেছেন। প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমারের সাথে সমস্যাটি নিয়ে আলোচনা অব্যাহত রয়েছে। বিশ্ববাসীর সহযোগিতা পেলে বাংলাদেশ আশা করছে দ্রুত এ সমস্যার সমাধান হবে এবং রোহিঙ্গারা শিগগিরই তাদের নিজ বাড়িতে ফিরে যাবেন।
সম্মেলনে উপস্থিত মিয়ানমারের ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন মিনিস্টার কাইও টিন বাণিজ্যমন্ত্রীর বক্তব্যকে সমর্থন করেন।

এসএস/এএল/