অস্ট্রেলিয়ার পথে প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ | ৩ ভাদ্র ১৪২৫

অস্ট্রেলিয়ার পথে প্রধানমন্ত্রী

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১০:১৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৬, ২০১৮

print
অস্ট্রেলিয়ার পথে প্রধানমন্ত্রী

গ্লোবাল সামিট অব উইমেন সম্মেলনে যোগ দিতে অস্ট্রেলিয়ার পথে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।তিন দিনের সরকারি এই সফরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যাত্রাবিরতি শেষে অস্ট্রেলিয়ার সিডনির উদ্দেশে তিনি ব্যাংকক ত্যাগ করেন।

প্রধানমন্ত্রী থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে প্রায় আড়াই ঘণ্টা যাত্রাবিরতি করেন। খবর: বাসস।

এর আগে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে রওনা হয়ে প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী থাই এয়ারওয়েজের বিমানটি ব্যাংককের সূবর্ণভূমি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্থানীয় সময় বিকেল চারটা ৫০ মিনিটে অবতরণ করে।

রয়্যাল থাই সরকারের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সঙ্গে সংযুক্ত মন্ত্রী কোবসাক পুত্রাকল এবং থাইল্যান্ডে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সাইদা মুনা তাসনীম বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান।

পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে থাই মন্ত্রী বৈঠক করেন। বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয় আলোচনা হয় বলে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানিয়েছেন।

প্রায় দু’ঘণ্টা যাত্রাবিরতির পর সন্ধ্যা সাতটা ২০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরেকটি থাই এয়ারওয়েজের বিমানযোগে সিডনি রওনা হন।

প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমানটি স্থানীয় সময় ২৭ এপ্রিল শুক্রবার সকাল সাতটায় (বাংলাদেশ সময় ভোর তিনটা) সিডনি পৌঁছনোর কথা রয়েছে।

এর আগে, প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে থাই এয়ারওয়জের একটি বিমান দুপুর একটা ৫০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে।

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম এবং ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান।

এছাড়া তিন বাহিনী প্রধান, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, ডিপ্লোমেটিক কোরের ডিন, বাংলাদেশে নিযুক্ত অস্ট্রেলীয় হাইকমিশনার এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

শেখ হাসিনা সিডনির আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে (আইসিসি) শুক্রবার এক অনুষ্ঠানে ভিয়েতনামের ভাইস প্রেসিডেন্ট থাই নগক থিন এবং কসোভোর সাবেক প্রেসিডেন্ট এতিফেত জাহজাগার সঙ্গে এই গ্লোবাল উইমেন’স লিডারশিপ এওয়ার্ড-২০১৮ গ্রহণ করবেন।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ‘গ্লোবাল সামিট অব উইমেন’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বাংলাদেশে নারী শিক্ষার প্রসার এবং নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে অগ্রণী ভূমিকা পালনের স্বীকৃতি হিসেবে এই সম্মাননা পদকে ভূষিত করেছে।

গ্লোবাল উইমেন সামিট বিশ্বব্যাপী নারী নেতৃবৃন্দের ব্যবসা এবং অর্থনৈতিক বিষয়াবলী সংক্রান্ত একটি বাৎসরিক সম্মেলন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের (পিএমও) একটি সূত্র জানায়, এই সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন এবং জাতীয় উন্নয়নের মূলধারায় নারীদের সম্পৃক্তকরণে তার সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ তুলে ধরবেন।

প্রধানমন্ত্রী সফরকালে ২৮ এপ্রিল অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুলের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল, সিডনিতে অস্ট্রেলীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলি বিশপ সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

শেখ হাসিনা ওয়েস্টার্ন সিডনি বিশ্ববিদ্যালয় পরিদর্শন করবেন এবং ২৮ এপ্রিল হোটেল সোফিটেলে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় যোগ দেবেন।

প্রধানমন্ত্রীর আগামী ২৯ এপ্রিল অস্ট্রেলিয়া ত্যাগ করে পরের দিন দেশে ফিরে আসার কথা রয়েছে।

আইএম

 
.


আলোচিত সংবাদ