সুদ অভাব ও বিপর্যয় নামিয়ে আনে

ঢাকা, ৯ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

সুদ অভাব ও বিপর্যয় নামিয়ে আনে

পরিবর্তন ডেস্ক ২:১০ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৮, ২০১৯

সুদ অভাব ও বিপর্যয় নামিয়ে আনে

সুদ মানবতা ধ্বংসের হাতিয়ার। সুদখোর সর্বাবস্থায় আল্লাহ ও তাঁর রাসুলের সঙ্গে যুদ্ধাবস্থায় থাকে। এটি আল্লাহ ও তাঁর রাসুলের দৃষ্টিতে অত্যন্ত জঘন্য একটি অপরাধ। রাসুল (সা.) সুদখোর, সুদদাতা ও সুদের সাক্ষীকে অভিশাপ দিয়েছেন। এবং বলেছেন, তারা সবাই সমান অপরাধী।–মুসলিম, হাদীস নং:১৫৯৮

তিনি বিদায় হজের ভাষণে সব ধরণের সুদকে নিষিদ্ধ করেছেন। (বুখারী) পবিত্র কুরআনেও মহান আল্লাহ বিভিন্ন আয়াতে মুমিনদের সুদ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। সূরা বাকারায় মহান আল্লাহ ইরশাদ করেন,

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُواْ اتَّقُواْ اللّهَ وَذَرُواْ مَا بَقِيَ مِنَ الرِّبَا إِن كُنتُم مُّؤْمِنِينَ . فَإِن لَّمْ تَفْعَلُواْ فَأْذَنُواْ بِحَرْبٍ مِّنَ اللّهِ وَرَسُولِهِ

‘হে ঈমানদারগণ, আল্লাহকে ভয় করো এবং তোমাদের যে সুদ বাকি আছে তা ছেড়ে দাও, যদি তোমরা ঈমানদার হও। যদি তোমরা এমন না করো তাহলে তোমরা আল্লাহ ও তাঁর রাসুলের পক্ষ থেকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হও।’–সূরা বাকারা, আয়াত:২৭৮-২৭৯

 সুদের কারণে পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রে বিপর্যয় নেমে আসে। সর্বত্র অশান্তি, বিপদ ও বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। নবীজি (সা.) ইরশাদ করেন,

إذا ظهر الزنا والربا في قرية، فقد أحلوا بأنفسهم عذاب الله

‘যখন কোন অঞ্চলে যিনা এবং সুদ প্রকট হয়ে ওঠে, তখন তারা নিজেদের ওপর আল্লাহর আযাবকে হালাল করে নেয়।’–সহীহ আল-জামে, হাদীস নং:৬৭৯

এছাড়া, আল্লাহ সুদের কারণে বান্দার রিযিক কমিয়ে দেন। পবিত্র কুরআনে ইরশাদ হয়েছে,

يَمْحَقُ اللّهُ الْرِّبَا وَيُرْبِي الصَّدَقَاتِ وَاللّهُ لاَ يُحِبُّ كُلَّ كَفَّارٍ أَثِيمٍ

‘আল্লাহ সুদকে হ্রাস করেন এবং সদকাকে বর্ধিত করেন। আল্লাহ তাআলা সুদকে নিশ্চিহ্ন করেন এবং দান খয়রাতকে বর্ধিত করেন। আল্লাহ পছন্দ করেন না কোন অবিশ্বাসী পাপীকে।’–সূরা বাকারা, আয়াত:২৭৬

এই আয়াতের ব্যাখ্যায় তাফসিরবিদগণ বলেন, সুদ সম্পদের বরকত নষ্ট করে দেয়। রাসুল (সা.) ইরশাদ করেন, যে জাতির মধ্যে সুদ প্রসারিত হয় তারা অবশ্যই দুর্ভিক্ষে নিপতিত হয়। (মুসনাদে আহমাদ)

এই দুর্ভিক্ষ অনেক ধরণেরই হতে পারে; যেমন—আগে দুর্ভিক্ষ ছিল খাবারের অভাব। আর এখন দুর্ভিক্ষ হচ্ছে নির্ভেজাল খাবারের অভাব। মানুষের কাছে টাকার নোট বাড়লেও সমাজ ও সংসারে শান্তি নেই। শরীরে সুস্থতা নেই। এছাড়া সুদের মাধ্যমে সাময়িক আয়-উন্নতি দেখলেও দেউলিয়া হয়ে যাওয়াই সুদের শেষ পরিণতি।

এমএফ/

 

হাদিসের জ্যোতি: আরও পড়ুন

আরও