প্রতিরাতে আল্লাহ যেভাবে ক্ষমার জন্য ডাকতে থাকেন 

ঢাকা, ২৩ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

প্রতিরাতে আল্লাহ যেভাবে ক্ষমার জন্য ডাকতে থাকেন 

বয়ান : মুফতি ইসমাইল মেনক ৫:৫৩ অপরাহ্ণ, জুন ২৪, ২০১৯

প্রতিরাতে আল্লাহ যেভাবে ক্ষমার জন্য ডাকতে থাকেন 

অনেক বেশি গুনাহ হয়ে গেছে? আপনি কি আল্লাহর ক্ষমার জন্য মরিয়া হয়ে আছেন? বারবার চাইছেন, কোটি কোটি পাপের বোঝা থেকে যদি একটু নির্ভার হওয়া যেতো, এমন কোনো আলোর ঝলকের দেখা যদি পাওয়া যেতো! তবে শুনুন, আপনার জন্য একটি হাদীস-

হযরত আবু মুসা আশআরী (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসূল (সা.) বলেছেন, “আল্লাহ রাতে তার ক্ষমার হাতকে বাড়িয়ে রাখেন যাতে দিনের গুনাহগারেরা তাদের গুনাহের জন্য ক্ষমা চাইতে পারে এবং দিনে তার ক্ষমার হাতকে বাড়িয়ে রাখেন যাতে রাতের গুনাহগারেরা তাদের গুনাহের জন্য ক্ষমা চাইতে পারে, যতদিন না সূর্য পশ্চিম থেকে উদিত হবে।” (মুসলিম)

হযরত আবু হুরাইরা (রা.) থেকে বর্ণিত অপর এক হাদীসে বলা হয়েছে, রাসূল (সা.) বলেন, “প্রতি রাতে আল্লাহ পৃথিবীর নিম্নতম আসমানে নেমে আসেন এবং তিনি জিজ্ঞেস করতে থাকেন, কেউ কি আছে আমার কাছে তাওবা করবে যার তাওবা আমি গ্রহণ করবো? কেউ কি আছে যে আমার কাছে ক্ষমা চাইবে যাকে আমি ক্ষমা করবো? কেউ কি আছে যে আমার কাছে কিছু প্রার্থনা করবে যার প্রার্থনা আমি কবুল করবো?” (বুখারী ও মুসলিম)

আমরা যদি আমাদের গুনাহকে ক্ষমা করার জন্য আল্লাহর সামনে দাঁড়াই, আল্লাহ নিশ্চিতভাবে আমাদের উপর খুশি হন।

দুনিয়াতে আমাদের যা কিছুই থাকুক না কেন, তা দুনিয়াতেই রেখে যেতে হবে। শূণ্য হাতে আমরা এই পৃথিবীতে  এসেছি। একমাত্র আমাদের নিজেদের কাজ ছাড়া আর কিছুই এখান থেকে নিয়ে যেতে পারবো না।

যদি আপনি দুনিয়ার বস্তুগত সম্পদের মোহেই নিজেকে ব্যস্ত রাখেন, যতই আপনি তা অর্জন করুন না কেন, পৃথিবী থেকে বিদায়ের মুহূর্তে সাড়ে তিন হাত কবর ছাড়া আর কিছুই আমাদের জন্য জুটবে না।

সুতরাং, নিস্তব্ধ রাতের এই চমৎকার সময় ক্ষমা লাভের মোক্ষম সময়। আমাদের উচিত আল্লাহর পক্ষ থেকে প্রদত্ত ক্ষমার এই বিপুল সুযোগকে গ্রহণ করে তা যথার্থভাবে কাজে লাগানোর জন্য অব্যাহতভাবে চেষ্টা করা।

এমএফ/

 

হাদিসের জ্যোতি: আরও পড়ুন

আরও