সগীরা গুনাহ কি কেবলই ছোট গুনাহ?

ঢাকা, ২৪ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

সগীরা গুনাহ কি কেবলই ছোট গুনাহ?

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:০১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৪, ২০১৯

সগীরা গুনাহ কি কেবলই ছোট গুনাহ?

অনেকেই সগীরা গুনাহকে কেবলই ছোট গুনাহ ভেবে এ থেকে বিরত হন না। কিন্তু সগীরা গুনাহকে লঘু মনে করা কোন ক্রমেই উচিত নয়। কেননা, এতে কবীরাহ গুনাহে আক্রান্ত হওয়ার পথ উন্মুক্ত হয়।

সগীরা গুনাহকে লঘুভাবে নেয়ার ভয়ানক পরিণতি কি হতে পারে, তা এখানে আলোচনা করছি-

(ক) মুসলমানের কর্তব্য, যা কিছু হতে আল্লাহ ও তাঁর রাসূল নিষেধ করেছেন, তা থেকে বিরত থাকা। কোনটা ছোট আর কোনটা বড় তা বিবেচ্য নয়।

রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন,

 وما نهيتكم عنه فانتهوا

“যা থেকে আমি তোমাদের নিষেধ করেছি, তা পরিহার কর।” (মুসলিম : ৪৩৪৮)

(খ) মানুষের কর্তব্য, আল্লাহ তাআলার অধিকারের প্রতি সম্মান প্রদর্শনার্থে গুনাহ পরিহার করে চলা। কেননা, যা কিছু আল্লাহ ও তাঁর রাসূল (সা.) পরিহার করতে বলেছেন, তা পরিহার না করার অর্থ আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের বিরুদ্ধে ঔদ্ধত্য প্রদর্শন ও অসম্মান দেখানো। সন্দেহ নেই এটা খুবই আপত্তিকর ও গর্হিত কাজ।

তাই, এ প্রসঙ্গে প্রখ্যাত তাবেয়ী বেলাল ইবনে সা’দ (রা.)-এর উক্তি এরূপ, তুমি ছোট অপরাধ করলে, না বড় অপরাধ তা ধর্তব্য নয়। মূল দেখার বিষয় তুমি কার কথার অবাধ্য হচ্ছো।

(গ) ছোট গুনাহ থেকে সাবধানতা অবলম্বন করার জন্য রাসূল (সা.) নির্দেশ দিয়ে বলেছেন :

إياكم ومحقرات الذنوب، فإنما مثل محقرات الذنوب كقوم نزلوا بطن واد فجاء ذا بعود وجاء ذا بعود، حتى أنضجوا خبزتهم، وإن محقرات الذنوب متى يؤخذ بها صاحبها تهلكه.

“তোমরা ছোট ছোট গুনাহ থেকে সাবধানতা অবলম্বন করবে। ছোট গুনাহে লিপ্ত হয়ে পড়ার দৃষ্টান্ত সেই পর্যটক দলের মত, যারা একটি উপত্যকায় বিশ্রাম নিতে বসল। অতঃপর তাদের মধ্যে এক ব্যক্তি একটি লাকড়ি নিয়ে উপস্থিত হল, অপর ব্যক্তি আরেকটি; পরিণতিতে তাদের রুটি প্রস্তুত হয়ে গেল। এবং ছোট গুনাহের কারণে যদি কাউকে পাকড়াও করা হয়, তবে, সন্দেহ নেই, তা তার ধ্বংসের কারণ হবে।” –মুসনাদে আহমাদ: ২১৭৪২

(ঘ) সগীরা গুনাহে মানুষের অভ্যস্ততার ফলে মানুষ ক্রমে অন্যান্য সগীরা এবং এক সময়ে কবীরা গুনাহে লিপ্ত হয়ে পড়ে। সগীরা গুনাহকে হালকা মনে করে তাতে লিপ্ত হওয়া শয়তানের কুমন্ত্রণা ছাড়া আর কিছু নয়।

আল্লাহ তাআলা বলেন,

يا أيها الذين آمنوا لا تتبعوا خطوات الشيطان.

“হে বিশ্বাসীগণ! তোমরা শয়তানের পদাঙ্ক অনুসরণ করো না।” -সূরা আন-নূর: ২১

রাব্বুল আলামিন আমাদেরকে ছোট বড় সকল গুনাহ থেকে বেঁচে তাঁর পছন্দ অনুযায়ী নেক আমলের মাধ্যমে নিকটবর্তী বান্দাদের অন্তর্ভুক্ত হওয়ার তাওফিক দান করুন। আমীন।

এমএফ/

আরও পড়ুন...
গুনাহ, পরিবেশ ও সাহচর্য
জীবনে গুনাহের ক্রমবিকাশ যেভাবে ঘটে
কবীরা গুনাহ সম্পর্কে জেনে নিন
গুনাহ করার পর শয়তান যেভাবে প্ররোচনা দেয়
তাওবাহ: কেন করব, কিভাবে করব?
বারবার তওবার পরে গুনাহ হতে থাকলে করণীয়
হতাশায় ভুগছেন? নবীজির মুখে শুনুন ফিরে আসার গল্প
বিষণ্ণতায় ভুগছেন? কোরআন আপনাকে কি বলে

 

হাদিসের জ্যোতি: আরও পড়ুন

আরও