শিশুকে ব্রেস্টফিডিং’র সময় এড়িয়ে চলুন এই খাবারগুলো

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

শিশুকে ব্রেস্টফিডিং’র সময় এড়িয়ে চলুন এই খাবারগুলো

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:৩৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯

শিশুকে ব্রেস্টফিডিং’র সময় এড়িয়ে চলুন এই খাবারগুলো

মায়ের দুধই হল সদ্যোজাতর জন্য সর্বশ্রেষ্ঠ খাদ্য ও পানীয়। শুধুমাত্র শিশুর জন্য নয়, স্তন্যপান করানো মায়ের স্বাস্থ্যের জন্যও অত্যন্ত জরুরি! সন্তান প্রসবের পরবর্তীকালে মায়ের শারীরিক গঠন ঠিক রাখতে ও দুর্বলতা ও ক্লান্তি কাটাতে ব্রেস্টফিডিং অত্যন্ত জরুরি। তবে শিশুর স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে এই সময় মায়েদের কিছু খাবার-দাবার এড়িয়ে চলাই ভালো। আসুন জেনে নেওয়া যাক এ সময় কোন খাবারগুলো এড়িয়ে চলা সদ্যোজাতর স্বাস্থ্যের জন্য জরুরি।

১. ব্রেস্টফিডিং-এর সময় দুগ্ধজাত খাবারের থেকে শিশুর ত্বকে সংক্রমণ বা অ্যালার্জি হতে পারে। তাই এই সময় দুগ্ধজাত খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলাই ভালো।

২. শিশু কি দুধ খেতে চাইছে না? এই সময় যদি মায়েরা খাবারের সঙ্গে অতিরিক্ত মাত্রায় রসুন খান, তাহলে শুধু মুখে নয়, দুধেও গন্ধ হতে পারে। আর ওই গন্ধে শিশুর দুধে অনিহা তৈরি হতে পারে।

৩. ব্রেস্টফিডিং-এর সময় বেশি কফি খেলে মায়ের দুধের সঙ্গে মিশতে পারে ক্যাফেইন যা শিশুর পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকারক!

৪. ব্রেস্টফিডিং-এর সময় চকোলেট পারলে যতটা সম্ভব কম খাওয়াই ভালো। কারণ, চকোলেটে রয়েছে ক্যাফেইন যা সদ্যোজাতর পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকারক!

৫. ব্রেস্টফিডিং-এর সময় পুদিনা বা মিন্ট জাতিয় খাবার এড়িয়ে চলাই ভাল। কারণ, পুদিনা বা মিন্ট জাতিয় খাবার দুধের পরিমাণ কমিয়ে দিতে পারে। ফলে শিশু তার প্রয়োজনীয় পুষ্টি থেকে বঞ্চিত হবে।

৬. লেবু জাতীয় ফল ব্রেস্টফিডিং-এর সময় না খাওয়াই ভালো। কারণ, লেবু জাতীয় ফলের টকে শিশুর হজমের সমস্যা তৈরি করতে পারে। অ্যালার্জি হতে পারে।

৭. ব্রেস্টফিডিং-এর সময় মদ্যপান থেকে বিরত থাকাই ভালো। কারণ, এই সময় মদ্যপান করলে মায়ের দুধে অ্যালকোহলের উপস্থিতি সদ্যোজাতর স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে।

৮. ব্রেস্টফিডিং-এর সময় সামুদ্রিক মাছ বা যে কোনও রকম সি ফুড এড়িয়ে চলাই ভাল। কারণ, এই সব খাবারে পারদের পরিমাণ বেশি থাকে যা মায়ের দুধকে বিষাক্ত করে তুলতে পারে।

ইসি/

 

জীবনযাত্রা: আরও পড়ুন

আরও