আবরার হত্যায় ২৫ জনকে আসামি করে চার্জশিট

ঢাকা, শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

আবরার হত্যায় ২৫ জনকে আসামি করে চার্জশিট

আদালত প্রতিবেদক ২:০৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৩, ২০১৯

আবরার হত্যায় ২৫ জনকে আসামি করে চার্জশিট

বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় ২৫ জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ।

বুধবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক (নিরস্ত্র) মো. ওয়াহিদুজ্জামান ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতের সংশ্লিষ্ট জিআর শাখায় অভিযোগপত্র জমা দেন।

চকবাজার থানা নিবন্ধন কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আগামী ১৮ নভেম্বর ধার্য তারিখে এ বিষয়ে শুনানি হবে।

গত ৬ অক্টোবর রাতে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শেরে বাংলা হলের আবাসিক ছাত্র ও তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরারকে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা পিটিয়ে হত্যা করে। পরদিন আবরারের বাবা বুয়েটের ১৯ শিক্ষার্থীকে আসামি করে চকবাজার থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ এজাহারের ১৬ জনসহ মোট ২১ জনকে গ্রেফতার করে।

মামলার এজাহারে যাদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে তারা হলেন- মেহেদী হাসান রাসেল (সিই বিভাগ, ১৩তম ব্যাচ), মুহতাসিম ফুয়াদ (সিই বিভাগ, ১৪তম ব্যাচ), মো. অনিক সরকার, (সিই বিভাগ, ১৫তম ব্যাচ), মো. মেহেদী হাসান রবিন (সিই বিভাগ, ১৫তম ব্যাচ), ইফতি মোশাররফ সকাল (বায়ো ম্যাডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ১৬তম ব্যাচ), মো. মনিরুজ্জামান মনির (পানি সম্পদ বিভাগ, ১৬তম ব্যাচ), মো. মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন (মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, ১৫তম ব্যাচ), মো. মাজেদুল ইসলাম (এমএমই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), মো. মোজাহিদুল রহমান (ইইই বিভাগ, ১৬তম ব্যাচ), খোন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভীর (এমই বিভাগ, ১৬তম ব্যাচ), হোসেন মোহাম্মদ তোহা (এমই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), মো. জিসান (ইইই বিভাগ, ১৬তম ব্যাচ), মো. আকাশ (সিই বিভাগ, ১৬তম ব্যাচ), মো. শামীম বিল্লা (মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৭তম ব্যাচ), মো. শাদাত (এমই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), মো. তানীম (সিই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), মো. মোর্শেদ (এমই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), মো. মোয়াজ (সিএসই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), ও  মুনতাসির আল জেমি (এমই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ)।

এজাহারে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, আবরারকে পরিকল্পিতভাবে  ডেকে নিয়ে ক্রিকেট স্টাম্প ও লাঠি-সোটা দিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় প্রচণ্ড মারধর করা হয়। এতে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। আসামিরা ওই ভবনের দ্বিতীয় তলার সিঁড়িতে আবরারের মরদেহ ফেলে রাখে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন...

এমআই/এএসটি

 

আইন ও অপরাধ: আরও পড়ুন

আরও