খালেদের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

খালেদের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৭:২৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯

খালেদের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ

অস্ত্র ও মাদক মামলায় যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার ৭ দিন করে রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এই রিমান্ড আবেদন করেন গুলশান থানার পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম।

ঢাকা মহানগর হাকিম বেগম মাহমুদার আদালতে এ রিমান্ড শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে খালেদকে নিয়ে গুলশান থানা থেকে পুলিশ আদালতের উদ্দেশ্যে রওনা হন বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) সুদীপ কুমার চক্রবর্তী।

তিনি বলেন, অস্ত্র ও মাদক মামলায় খালেদের ৭ দিন করে রিমান্ড চাইতে তাকে ঢাকা সিএমএম আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং আইনে যে মামলা হয়েছে, নিয়ম অনুযায়ী সেটির তদন্ত ও দেখভাল করবে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

এর আগে বিকালে র‍্যাব বাদী হয়ে খালেদের বিরুদ্ধে মাদক-অস্ত্র ও মানি লন্ডারিং আইনে পৃথক তিনটি মামলা করে।

র‍্যাবের লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক এএসপি মিজানুর রহমান পরিবর্তন ডটকমকে জানান, খালেদকে গুলশান থানায় হস্তান্তর করে অস্ত্র ও মাদক এবং মানি লন্ডারিং আইনে মামলা করা হয়েছে। মামলাগুলোতে তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে নিয়ে রিমান্ড আবেদন করা হবে।

উল্লেখ্য, বুধবার সন্ধ্যায় ফকিরাপুলে ইয়ংমেন্স ক্লাবে অবৈধভাবে জুয়ার আসর চালানোর অভিযোগে যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে গুলশানে নিজ বাসা থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

একই সময় ফকিরাপুলের ওই ক্লাবে অভিযান চালিয়ে দুই নারীসহ ১৪২ জনকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে দণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সেখান থেকে জব্দ করা হয় বিপুল পরিমাণ অর্থও।

পিএসএস/এসবি

আরও পড়ুন...
চাঁদা না দিলে টর্চার সেলে নির্যাতন করতেন খালেদ
কে এই খালেদ?
খালেদের ক্যাসিনো থেকে আটক ১৪২ জনের দণ্ড
যুবলীগ নেতা খালেদের ক্যাসিনোতে র‌্যাবের অভিযান
যুবলীগ নেতা খালেদের বাসা ঘিরে রেখেছে র‌্যাব
কেমন ছিল খালেদের ক্যাসিনো সাম্রাজ্য?
খালেদের বিরুদ্ধে অস্ত্র-মাদক-মানি লন্ডারিংয়ের মামলা

 

আইন ও অপরাধ: আরও পড়ুন

আরও