'আমরা নিরপরাধ, পেটের দায়ে ক্যাসিনোতে কাজ করি'

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

'আমরা নিরপরাধ, পেটের দায়ে ক্যাসিনোতে কাজ করি'

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯

'আমরা নিরপরাধ, পেটের দায়ে ক্যাসিনোতে কাজ করি'

'পেটের দায়ে ক্যাসিনোতে চাকরি করি। আমাদের কোন দোষ নাই।' ঢাকার ফকিরাপুলের ইয়ংমেন্স ক্লাবে জুয়ার আসরে অভিযানের সময় র‍্যাব সদস্যদের কাছে এভাবেই আকুতি করছিলেন ক্লাবের দুই নারী কর্মচারী।

তাদের একজন সেখানে রিসিপশনিস্ট হিসেবে চাকরি করেন, আরেকজন জুয়ার বোর্ডে কার্ড সরবরাহের কাজ করেন।

তাদের মধ্যে একজন র‍্যাব সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা এখানে পেটের দায়ে কাজ করি, এটা কি আমাদের অপরাধ? ওয়েস্টার্ন ড্রেস ছেড়ে আমাদের থ্রিপিস পড়তে দিন। এখানে ওয়েস্টার্ন না পড়লে চাকরি করা যাবে না, তাই এই পোশাক পড়েছি।

তখন র‍্যাবের এক সদস্য তাদের বলেন, ঊর্ধ্বতনদের পারমিশন নাই, আমদের কিছুই করার নেই।

এক পর্যায়ে ওই তরুণী বলেন, আমরা কোন খারাপ কাজ করি না। এখানে খারাপ কাজের কোন সুযোগ নেই। সব জায়গায় সিসি ক্যামেরা লাগানো। টাকার জন্য এখানে কাজ করি। আমার স্বামী ছাড়া পরিবারের অন্য কেউ জানে না এই কাজের কথা। আমরা নিরপরাধ। আমাদের ছেড়ে দিন।

উল্লেখ্য, বুধবার সন্ধ্যায় ফকিরাপুলে ইয়ংমেন্স ক্লাবে অবৈধভাবে জুয়ার আসর চালানোর অভিযোগে যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। গুলশানে নিজ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

একই সময় ফকিরাপুলের ওই ক্লাবে অভিযান চালিয়ে দুই নারীসহ ১৪২ জনকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে দণ্ড দেন ভ্রাম্যমান আদালত। ক্লাবে পাওয়া যায় মদ আর জুয়ার বিপুল আয়োজন। সেখান থেকে জব্দ করা হয় বিপুল পরিমাণ অর্থও।

পিএসএস/এআরই

 

আইন ও অপরাধ: আরও পড়ুন

আরও