মোয়াজ্জেমের জামিন নামঞ্জুর

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

মোয়াজ্জেমের জামিন নামঞ্জুর

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৩:০১ অপরাহ্ণ, জুন ১৭, ২০১৯

মাদ্রাসাছাত্র নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ডে ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার দুপুরে সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আস-সামছ জগলুল হোসেন এ আদেশ দেন।

ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন

একই সঙ্গে নুসরাত হত্যার ঘটনায় দায়ের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ৩০ জুন ধার্য করেছেন আদালত।

আদালতে আসামিপক্ষে শুনানি করেন ফারুক আহমেদ। আর বাদী ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন নিজেই শুনানি করেন।

এর আগে আলোচিত এই আসামিকে দুপুর ২টা ২০ মিনিটের দিকে কড়া পুলিশ পাহারায় এজলাসে তোলা হয়। এ সময় তার হাতে কোনো হাতকড়া ছিল না।

গতকাল রোববার রাজধানীর সুপ্রিম কোর্ট এলাকা থেকে গ্রেফতার হন মোয়াজ্জেম হোসেন। পরে সোমবার তাকে ফেনীর সোনাগাজী থানার কাছে হস্তান্তর করে শাহবাগ থানা। এরপর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে প্রিজনভ্যানে তাকে আদালতে নিয়ে হাজতখানায় রাখা হয়।

পুলিশের একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্রের দাবি, হাইকোর্ট থেকে জামিন নেয়ার জন্য কুমিল্লা থেকে রোববার ঢাকায় আসেন মোয়াজ্জেম হোসেন। পরে দুপুরে তিনি আইনজীবীর চেম্বারে যান। এক পর্যায়ে মোয়াজ্জেম হোসেন বাইরে বের হলে আগে থেকে অবস্থান নেয়া শাহবাগ থানার পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

প্রসঙ্গত, নুসরাত যখন চিকিৎসাধীন ছিলেন তখনও আসামিদের গ্রেফতার না করে মামলা দায়ের বিলম্বিত করার চেষ্টার অভিযোগ রয়েছে সোনাগাজী থানার ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে। গত ১০ এপ্রিল ঢামেকে নুসরাতের মৃত্যুর পর এ ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোনো আসামি ছাড় পাবে না ঘোষণা দিলে ওসি মোয়াজ্জেমের ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগ সামনে চলে আসে।

এরপর গত ১৫ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন।

নুসরাতের কাছ থেকে নেয়া জবানবন্দির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ায় তার বিরুদ্ধে ওই মামলা করা হয়।

পরে সোনাগাজী থানা থেকে মোয়াজ্জেমকে প্রত্যাহার করে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় এবং রংপুর রেঞ্জে সংযুক্ত করা হয়। রংপুর রেঞ্জে যোগ দিলেও ঈদের পর থেকে তার সন্ধান পাচ্ছিলো না পুলিশ।

গত ২৬ মে ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামস জগলুল হোসেন গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। ১৭ জুন পরোয়ানা তামিল সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য তদন্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেয়া হয়।

পিএসএস/আইএম
আরও পড়ুন...
আদালতের হাজতখানায় মোয়াজ্জেম, ২টায় শুনানি

 

আইন ও অপরাধ: আরও পড়ুন

আরও